| রাত ৯:০৮ - রবিবার - ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

উৎপাদন ব্যাহত

ময়মনসিংহে টমেটো চাষে কৃষক প্রতারিত, পঞ্চাশ কোটি টাকার ক্ষতি

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ    বেশী লাভের আশায় চলতি মৌসুমে আগাম জাতের উচ্চ ফলন শীল হাইব্রিড টমেটো চাষের আবাদ করে ময়মনসিংহ এর চরাঞ্চলের কৃষকরা প্রতারিত হয়েছে। মাঠের পর মাঠ চোখ জুড়ানো সবুজ সমারোহ টমেটো গাছে। ফুল হলেও গাছে ফল না আসায় কৃষকরা লোকসানের মূখে পড়েছে। এগ্রো কনসান লিমিটেডের ‘কনক’ এবং ঢাকা সীড কোম্পানীর ‘রাজা ওয়ান’ হাইব্রিড জাতের টমেটোর ভেজাল বীজে কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।
 

কৃষক ও বীজ বিক্রেতারা কোম্পানীর লোকজনকে জানালেও তারা এ ব্যাপারে কোন কর্ণপাত করছে না, ময়মনসিংহ কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, হাইব্রিড নিন্ম মানের এবং পুরানো টমেটো বীজ সরবরাহ করায় এই সমস্যা দেখা দিয়েছে,

 

ময়মনসিংহ কৃষি সম্প্রসারন বিভাগের উপ-পরিচালক আলতাবুর রহমান জানিয়েছেন লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর বিষয়টি ক্ষতি দেখা হবে। দেশে টমেটোর অর্ধেক যোগান দাতা বোররচরে অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার টমেটোর আবাদ অর্ধেকে নেমে এসেছে। দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম টমেটো উৎপাদিত এলাকা ময়মনসিংহ এর সদর উপজেলার বোররচরের এগ্রো কনসান লিমিটেডের ‘কনক’ এবং ঢাকা সীড কোম্পানীর ‘রাজা ওয়ান’ উচ্চ ফলনশীল হাইব্রিড জাতের টমেটো গত বছর চাষ করে বেশী ফলন পেয়েছিল, এবার সেই আশায়  কৃষকরা বেশী লাভের আশায় লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যায় করে একই জাতের টমেটোর চাষ করে বিপাকে পড়েছে।

 

মাঠের পর মাঠ সবুজে সমারোহ টমেটো গাছে ফুল দেখা গেলেও কোন ফল না আশায় কৃষকরা কোটি টাকার ক্ষতির মূখে পড়েছে। বোরর চরের কৃষক ডা: সাইফুল ইসলাম জানান দেশে টমেটোর অর্ধেক যোগান দাতা বোররচরে অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার টমেটোর আবাদ অর্ধেকে নেমে এসেছে ।

 

এগ্রো কনসান লিমিটেডের ‘কনক’ এবং ঢাকা সীড কোম্পানীর ‘রাজা ওয়ান’ হাইব্রিড জাতের টমেটোর খুচরা বীজ বিক্রেতারা বলেন, প্রতি বছরের মতো এবারও কৃষকদের কাছে বাকীতে ভেজাল ও নিন্মমানের বীজ বিক্রি করে তারাও বিপদে পড়েছে। তাদের ব্যবসায়িক সুনাম নষ্ট হয়ে যাওয়ায় তারা বড় ধরনের ক্ষতির সন্মূখে পড়েছে। বিষয়টি কোম্পনীর লোকজনকে জানালে তারা বলে আজ আসবো কাল আসবো এই ভাবে সময় পার করছে।

 

টমেটো চাষে দেশের দ্বিতীয় উৎপাদন এলাকা হিসেবে পরিচিত বোররচরের ভেজাল বীজের কারনে উৎপাদন যেমন অর্ধেকে নেমে এসেছে তেমনি কৃষকরা এবছর প্রায় পঞ্চাশ কোটি টাকার ক্ষতি এবং টমেটো চাষে অর্থনৈতিক ভাবে নির্ভর শীল কৃষক মহাজনি ঋনের ভারে দিশেহারা হয়ে পড়েছে। এছাড়াও কৃষকরা এ ব্যাপারে কৃষকরা সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

 

কৃষি বিভাগের মাঠ পর্যায়ের বোররচর এলাকার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সাজিয়া আফরিন ঝর্ণা জানান, বিষয়টি কৃষকরা জানালে সরেজমিনে মাঠ পরিদর্শন করে দেখেন টমেটো গাছ বড় এবং ফুল হলেও নিন্মমানের ও পুরানো হাইব্রিড বীজের ফলে গাছে ফল আসছে না বিষয়টি তিনি উপজেলা ও জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের লিখিত ভাবে জানিয়েছেন।

 

কোম্পানীর খুচরা বীজ বিক্রেতা ও ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের সাথে সুর মিলিয়ে কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপপরিচালক কৃষিবিদ আলতাবুর রহমান জানান উচ্চ ফলনশীল হাইব্রিড বীজের গাছ হবে ঠিকই কিন্তু গাছে কোন ফল আসবেনা। এলাকার কৃষকরা লিখিত ভাবে অভিযোগ করলে বিষয়টি তদন্ত করে সংশ্লিষ্ট কোম্পানীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা এবং কৃষকদের ক্ষতি পূরুন দেয়ার জন্য সরকারের কাছে উপস্থাপন করবো। কৃষি বিভাগের লোকজনের পরামর্শ ছাড়াই এবার চাষীরা টমেটো চাষ করায় বিপাকে পড়েছে,ফলে উৎপাদন ব্যাহত হয়েছে।

 

এগ্রো কনসান লিমিটেডের ‘কনক’ এবং ঢাকা সীড কোম্পানীর ‘রাজা ওয়ান’ হাইব্রিড জাতের টমেটোর ভেজাল বীজে কৃষকরা আবাদ করে যে ক্ষতির মূখে পড়েছে, তা কিভাবে পুষিয়ে উঠবে এবং মহাজনি ঋনের বোঝা থেকে পরিত্রান পাবে এই চিন্তায় কৃষকরা খাওয়া ধাওয়া ও ঘুম ছেড়ে দিয়েছে।এ ব্যাপারে সরকার  সংশ্লিষ্ট কোম্পানীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করে প্রতারিত ও ক্ষতি গ্রস্থ কৃষকদের রক্ষা করবে এমনটাই আশা করছে বোররচরের কৃষকরা।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৩:৪২ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ১৮, ২০১৬