| রাত ১২:৫৩ - বৃহস্পতিবার - ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ৬ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

শ্রীবরদীর রাজা পাহাড়ে উডলট বাগান সৃজনের উদ্যোগ গ্রহন

শ্রীবরদী প্রতিনিধি,১১ জানুয়ারি ২০১৬: শেররপুরের শ্রীবরদী উপজেলার সীমান্ত জনপদের রাজা পাহাড় নামক এলাকায় বন বিভাগের প্রায় শতাধিক একর জমি জবরদখলকারীদের হাত থেকে উদ্ধার করে সেই জমিতে সামাজিক উডলট বাগান সৃজনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে ময়মনসিংহ বন বিভাগ। জানা যায়, ময়মনসিংহ বন বিভাগের নিয়ন্ত্রনাধীন বালিজুরী ফরেস্ট রেঞ্জের কর্ণঝোড়া বিটের কর্ণঝোড়া মৌজার রাজা পাহাড় নামক এলাকাতে বন বিভাগের শতাধিক একর জমি দীর্ঘদিন যাবত স্থানীয় ভূমিদস্যুরা দখল করে। পাশাপাশি লালন শাহ্‌ নামে একটি ইন্সটিটিউশন ও পর্যটন কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করে একটি মহল। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত ৩ই জানুয়ারী শেরপুর-৩ আসনের সরকার দলীয় এমপি ও পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সদস্য প্রকৌশলী এ.কে.এম. ফজলুল হক চাঁন রাজা পাহাড় পরিদর্শন করে স্থানীয় রেঞ্জ কর্মকর্তাকে বন বিভাগের খালি জায়গায় আগামী ৩০ জুনের মধ্যে বনায়ন কার্যক্রম শেষ করার এবং অবৈধ জবরদখলকারীদের সামাজিক বনায়নে উপকারভোগী হিসেবে নিয়োগের মাধ্যমে বনভূমি জবরদখলমুক্ত করার নির্দেশ প্রদান করেন। বালিজুরী রেঞ্জ কর্মকর্তা তারিকুল ইসলাম বলেন, স্থানীয় এমপি’র নির্দেশে ২০১৫-১৬ সনে অনুন্নয়ন খাতের আওতায় অংশীদারীত্বের ভিত্তিতে ৪৫% লভ্যাংশের মাধ্যমে ১৫০ হেক্টর স্বল্প মেয়াদী উডলট বাগান করা হইবে। ইতিমধ্যেই স্থানীয় এমপি, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ওসি, ইউপি চেয়ারম্যান, আ’লীগের নেতৃবৃন্দদের নিয়ে রাজাপাহাড় পরিদর্শন করে বাগান সৃজনের নির্দেশনা প্রদান করেছেন। কর্ণঝোড়া বিট কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম বলেন, নতুন বাগান সৃজনের মাধ্যমে অত্র অঞ্চলের মানুষ বাগানের উপকারভোগী হতে পারবেন। এতে করে মানুষের আর্থিক স্বচ্ছলতা ফিরে আসবে। স্থানীয় সংসদ এ.কে.এম ফজলুল হক চাঁন বলেন, বন বিভাগের খালি জায়গায় নতুন বাগান সৃজনের মাধ্যমে সরকারের জলবায়ু পরিবর্তনের আন্দোলন বেগবান হবে। তেমনি অবহেলিত এ পাহাড়ি অঞ্চলের মানুষ বাগান তৈরী করে আর্থিক ভাবে লাভবান হবেন। স্থানীয় এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা গেছে বেশ কিছুদিন আগে একটি মহল রাজা পাহাড় এলাকায় লালন ইন্সটিটিউশন ও পর্যটন কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করে। ফলে বন বিভাগের সাথে ওই মহলের বিরোধ বাঁধে  অবশেষে স্থানীয় এমপি’র হস্থাক্ষেপে বিষয়টির সুরাহা হয়। বন বিভাগের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে স্থানীয় এলাকাবাসী।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:৩৯ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ১১, ২০১৬