| রাত ১১:৪৯ - বুধবার - ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ৫ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

ঘাটাইল পৌরসভার দুই কাউন্সিলরকে পিটিয়ে আহত

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি, ৫ জানুয়ারি ২০১৬, মঙ্গলবার,
ঘাটাইল পৌরসভার নির্বাচিত বর্তমান দুই কাউন্সিলরকে পিটিয়ে আহত করেছে প্রতিপক্ষরা। সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনকে কেন্দ্র করে পৃথক দুটি স্থানে ্‌ও ঘটনা ঘটে। আহতরা হল ঘাটাইল পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনছুর আলী ও ৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শেখ মোহাম্মদ কবীর আহম্মেদ। তাদের দুজনকেই উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। তারা দুজনই স্থানীয সাংসদ আমানুর রহমান রানার অনুসারী।
প্রত্যাড়্গদর্শী ও স্থানীয়রা জানায় ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ঘাটাইল কলেজ মোড়ে সোমবার সারাদিন ব্যাপি বণাঢ়্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করে উপজেলা আ’লীগের আহবায়ক শহিদুল ইসলাম লেবুর অনুসারী উপজেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। অনুষ্ঠানটি উদ্ভোধন করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ সভাপতি মাহমুদুল হাসান মারম্নফ। অপরদিকে সাংসদ রানার সমর্থকরা এমপির বাসায় পৃথকভাবে কেক কেটে অনুষ্ঠান করে এবং ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়। এতে লেবুর সমর্থক ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ড়্গুদ্ধ হয়।এ ঘটনার জের ধরে ঘাটাইল পৌরসভার জনতা সিনেমা হলের সামনে ৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শেখ মোহাম্মদ কবীর আহম্মেদ পিটিয়ে হা-পা ভেঙ্গে দেয়। অপর দিকে কাজী রোড হামলার স্বীকার হন ৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনছুর আহম্মেদ। তার হাত ভেঙ্গে যায়।
এ ব্যাপারে উপজেলা আ’লীগের আহবায়ক শহিদুল ইসলাম লেবু অভিযোগ করে বলেন ছাত্রলীগের কর্মীরা মিছিল নিয়ে আসার সময় পৌরসভার আমতলাতে সাংসদ রানার লোকজন তাদের বাধা দেয়। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন না করে ফেসবুকে মিথ্যা স্ট্যাটাস দেয়ায় ছাত্রলীগের কর্মীরা বিড়্গুদ্ধ হয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। এটি একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা।
ঘাটাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ কামাল হোসেন বলেন, দুই কাউন্সিলর আহত হওয়ার ঘটনা আমি শুনেছি। তবে এ নিয়ে কোন পড়্গই আমার কাছে অভিযোগ করেনি। অভিযোগ দিলে প্রয়োজনীয় ব্যাবস’া গ্রহন করা হবে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:৪৪ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ০৫, ২০১৬