| দুপুর ২:৫৩ - সোমবার - ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১১ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

জামালপুরের চিহ্নিত রাজাকারের সন্তানরা রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ পদ দখল করে আছে… খোকা

 

স্টাফ রিপোর্টার, ৩ জানুয়ারি ২০১৬, রবিবার,
জামালপুর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার সাবেক এমপি শফিকুল ইসলাম খোকা বলেছেন, জামালপুরের চিহ্নিত রাজাকারের সন্তানরা রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ পদ দখল করে আছে। জামালপুর সদরের একজন চিহ্নিত রাজাকারের একাধিক সন্তান রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে এখনো নানা ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছেন। তিনি রোববার জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, আগামী ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে জামালপুর জেলার রাজাকার, আলবদর ও আল সামসদের নামের তালিকা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হবে। তিনি জানান, জামালপুর জেলায় প্রায় ৩ হাজার আল বদর, রাজাকার ও আল সামস রয়েছে। এর মধ্যে সদর উপজেলার তিতপল্লা ইউনিয়নেই আছে ৮শ ৮৬ জন রাজাকার।
বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মাহবুবুল হক চিশতি ওরফে বাবুল চিশতির বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই দাবি করেন।
সংবাদ সম্মেলনে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা বাবুল চিশতিকে সামাজিকভাবে হেয় করতেই হামিদুল ইসলাম নামে এক ব্যাক্তি ২০০৯ সালের ১৩ জুলাই শেরপুরের ঝিনাইগাতী থানায় মিথ্যা মামলা দায়ের করে। পরবর্তীতে বাদী নিজেই মামলাটি প্রত্যাহারের আবেদন করেছে। বাবুল চিশতির মুক্তিযোদ্ধা সনদের ক্রমিক নং ম-১৩২৭৪৫, বাংলাদেশ গেজেট নং-২০৯০, তারিখ ২৩ মে ২০০৫। কল্যাণ ট্রাস্ট দ্বিতীয় খন্ডের নং ১৬৬২৩।
মামলাটি বাদী হামিদুল ইসলাম শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতী উপজেলার নাচনমহুরী গ্রামের মৃত মোখলেছুর রহমানের পুত্র।
সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়, শেরপুর চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের বিচারিক আদালত এই মামলার কোন আদেশ না দিলেও কোন কোন গণমাধ্যমে আদেশ প্রদানের ভূয়া খবর প্রকাশ করা হয়েছে। এতে বীর মুক্তিযোদ্ধা বাবুল চিশতির ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করা হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে উপসি’ত ছিলেন বীর প্রতীক সদরুজ্জামান হেলাল, বকশীগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার আলহাজ্ব মফিজ উদ্দীনসহ জেলা ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কর্মকর্তারা।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:৪৪ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ০৩, ২০১৬