| রাত ২:২০ - রবিবার - ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১০ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

মেয়ের বিয়ের জন্য প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা পেলেন রিকসাচালক দুলাল

সিম্মী আহাম্মেদ, কিশোরগঞ্জ, ২৯ ডিসেম্বর ২০১৫, মঙ্গলবার,
মাত্র আট হাজার টাকার জন্য আটকে ছিলো দরিদ্র রিকসাচালক দুলাল মিয়ার মেয়ে তানিয়ার বিয়ে। পত্রিকায় এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হলে, সেটি নজরে আসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। আর্থিক সমস্যার কারণে দরিদ্র রিকসাচালকের মেয়ের বিয়ে আটকে যাওয়ার বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে ব্যথিত করে। তিনি তানিয়ার বিয়ের জন্য ২০ হাজার টাকা অনুদান প্রদানের নির্দেশ দেন। মঙ্গলবার বিকালে প্রধানমন্ত্রীর এই সৌজন্য উপহার আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেয়া হয় তানিয়ার বাবা দুলাল মিয়ার হাতে। কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আনিছুজ্জামান ২০ হাজার টাকার এই অনুদানের চেক হসত্মানত্মর করেন। মেয়ের বিয়ের জন্য প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা পেয়ে আনন্দে উদ্বেল হোসেনপুর উপজেলার ধুলজুরী গ্রামের এই রিকসাচালক বাবা। তিনি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, অহন আমার মেয়ের বিয়্যা আর আটকাইব না। আলস্নাহ্‌ যেনঅ আমরার প্রধানমন্ত্রীরে ভালা রাহে। আগামী ৫ই মাঘ তার মেয়ের বিয়ে পার্শ্ববর্তী নারায়ণডহর গ্রামের মানিক মিয়ার ছেলে অটোচালক বাবলু মিয়ার সঙ্গে অনুষ্ঠিত হবে বলেও তিনি জানান।
জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আনিছুজ্জামান জানান, প্রধানমন্ত্রীর সৌজন্যে জেলা পরিষদের সংশিস্নষ্ট তহবিল থেকে দুলাল মিয়াকে এই অনুদান প্রদান করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর মানবিক এই সহায়তা পেয়ে দরিদ্র পরিবারটি প্রকৃত অর্থেই উপকৃত হলো।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:১২ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ২৯, ২০১৫