| রাত ৩:৩৫ - শুক্রবার - ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১৪ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

গফরগাঁওয়ে আ’লীগের এক কাউন্সিলর প্রার্থীর হামলায় অপর প্রার্থীর মা নিহত

 

স্টাফ রিপোর্টার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫, বৃহস্পতিবার,
ময়মনসিংহের গফরগাঁও এলাকার ৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কাউন্সিলর পদপ্রার্থী আজিজুল হকের মা রাবেয়া খাতুনকে (৬৫) একই ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ সভাপতি আনিসুল হক ও তাঁর সমর্থকদের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ করেছে পরিবারের সদস্যরা।  গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আজিজুল হকের বাড়িতে হামলা চালিয়ে তাঁর মা রাবেয়া খাতুনকে (৬৫) হত্যা করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।
নিহতের ছেলে আজিজুল হকের উদ্ধৃতি দিয়ে গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি (তদন-) মো. হাবিবুর রহমান জানান, আজিজুল হক ও আনিসুল হক প্রতিবেশী এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নেতা। বুধবার রাতে আজিজুল তাঁর কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে নিজ বাড়িতে নির্বাচনী আলোচনা সভা করছিলেন। এ সময় তাঁদের ওপর হামলা চালায় আনিসুলের সমর্থকরা। এর পরপরেই আজিজুল তাঁর মা রাবেয়াকে মৃত অবস’ায় দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস’লে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।
ওসি হাবিবুর রহমান আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে জানান, গতকাল রাতে আজিজুল হকের বাড়িতে হামলা চালায় আনিসুল হক ও তার কর্মী-সমর্থকরা। আনিসুল ও আজিজুলের নির্বাচনী বিরোধের জের ধরেই এ হামলার ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। ওই হামলায় আজিজুলের মা নিহত হন। এ ঘটনায় তাঁর দুই ভাইও আহত হন।
এদিকে, এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আনিসুলের ভাতিজা ইকবাল ও ভাগ্নে সোহাগকে আটক করেছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁদের থানায় নেওয়া হয়েছে।
ওসি আরো জানান, তবে আজিজুলের মাকে কীভাবে হত্যা করা হয়েছে, তার বাহ্যিক কোনো আলামত নজরে পড়েনি। রাবেয়া সাত মাস ধরে প্যারালাইসিসে ভুগছিলেন। ময়নাতদনে-র পরই এ বিষয়ে বলা যাবে।
এরই মধ্যে রাবেয়া খাতুনের মৃতদেহ ময়নাতদনে-র জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। আজিজুল ও আনিসুলের মুঠোফোন নম্বর না থাকায় তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।###

সর্বশেষ আপডেটঃ ১২:০২ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ১৭, ২০১৫