| রাত ১:৫৭ - রবিবার - ২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৬ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

জিএসপি সুবিধা বাতিল দু:খজনক-প্রধানমন্ত্রী

নিউইয়র্ক থেকে এনা | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫, শনিবার,

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বর্তমানে নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ একটি রোল মডেল। আমাদের গার্মেন্টস শিল্পে কর্মরত আছে প্রায় ৪ মিলিয়ন শ্রমিক। যাদের মধ্যে ৯০ ভাগই হচ্ছে নারী শ্রমিক। এসব নারী শ্রমিকেরা তাদের কষ্টার্জিত উপার্জনে পরিবারকে সহযোগিতা করে যাচ্ছে। সন্তানদের স্কুলের খরচ যোগাচ্ছে। অথচ জিএসপি বাতিল করায়, তারাও বঞ্চিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জিএসপি সুবিধা বাতিলে দু:খপ্রকাশ করেন এবং  বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে বিবেচনায় করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানান। নিউইয়র্ক সময় শুক্রবার দুপুরে ম্যানহাটনের ওয়ালডর্ফ অ্যাস্টোরিয়া হোটেলে অনুষ্ঠিত ‘বিজনেস কাউন্সিল ফর ইন্টারন্যাশাল আন্ডারস্ট্যাডিং-বিসিআইইউ’র আয়োজনে আন্তর্জাতিক ব্যবসায়ীদের এক গোলটেবিল আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সব কথা বলেন। বিসিআইইউ’র উদ্যোগে আয়োজিত আন্তর্জাতিক ব্যবসায়ীদের এ গোলটেবিল আলোচনায় মডারেটর’র দায়িত্ব পালন করেন, ম্যাকলার্টি অ্যাসোসিয়েটস’র সিনিয়র অ্যাডভাইজার অ্যাম্বাডেসর টেরিসকা শাফ্ফার।
এসময়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জিএসপি সুবিধা থেকে বাংলাদেশ বঞ্চিত হওয়া বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তিনি ক্ষোভের সাথে বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার সবক’টি দেশ জিএসপি সুবিধা পেলেও বাংলাদেশের ক্ষেত্রে তা হয়নি। জিএসপি সুবিধা বাতিল যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের চলমান সম্পর্কের মধ্যে অন্যতম একটি অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছে।
বিজনেস কাউন্সিল ফর ইন্টারন্যাশাল আন্ডারস্ট্যাডিং-বিসিআইইউ’র আয়োজনে আন্তর্জাতিক ব্যবসায়ীদের সাথে আয়োজিত এ গোলটেবিল আলোচনায় মডারেটর ছিলেন ম্যাকলার্টি অ্যাসোসিয়েটস’র সিনিয়র অ্যাডভাইজার অ্যাম্বাডেসর টেরিসকা শাফ্ফার। এতে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের পক্ষে অংশ নেন, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, প্রধানমন্ত্রীর অর্থ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান, পররাষ্ট্র বিষয়ক উপদেষ্টা গওহর রিজভী, ওয়াশিংটনে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত জিয়াউদ্দিন আহমেদ, জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশ মিশনের স্থায়ী প্রতিনিধি ড. একে আবদুল মোমেন’সহ অনেকে।
এদিকে, আন্তর্জাতিক ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতাদের সাথে বৈঠকের আগে সকাল ১০টায়  জাতিসংঘের সদর দপ্তরে সংস্থাটির ৭০তম সাধারণ অধিবেশনে সূচনা পর্বে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী। মহাসচিব বান কী মুনের তত্ত্বাবধানে এতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্রে সফররত খ্রীস্টান সম্প্রদায়ের ধর্মীয় গুরু পোপ ষোড়শ বেন্ডিক্ট, পাকিস্তানের নোবেল বিজয়ী মালালা উইসুফজাই। এরপর বিকাল ৫টায় নিউইয়র্ক সিটির কলোম্বিয়া ইউনিভার্সিটর ওয়ার্ল্ড লিডারস ফোরাম আয়োজিত ‘গার্লস লীড দ্য ওয়ে’ অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ন’সহ নানা বিষয়ে বক্তব্য রাখেন তিনি। তিনি বলেন, নারীদের ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ বিশ্বের রোল মোডেল দেশ হতে পারে। বাংলাদেশে আমাদের সরকার নারী অধিকার ও নারীর ক্ষমতায়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। অনুষ্ঠানে তিনি বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:১৭ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৫