| রাত ৪:৫৬ - মঙ্গলবার - ২৩শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৮ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১৬ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

পাকুন্দিয়ায় বাস ছিনতাইকারি চক্রের সদস্য গ্রেপ্তার, বাস-চালকসহ ৪জন উদ্ধার

 

পাকুন্দিয়া প্রতিনিধি : ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৫, সোমবার,
কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় ছিনতাইকৃত বাস ও বাসের চালক, সুপারভাইজার ও হেলপারকে উদ্ধার ও ছিনতাইকারি চত্রের এক সদস্যকের গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। সোমবার বেলা ৩টার দিকে তাদের উদ্ধার ও ওই ছিনতাইকারিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জানা গেছে, জামালপুর টু ঢাকাগামি আসাদ এন্ড আশিক এন্টারপ্রাইজ নামে একটি বাস (ঢাকা মেট্রো-গ-১৪-৩৪০৮) রোববার রাত ১১টার দিকে সাভার জিরানি নামক স্থানে পেট্রোল পাম্পের নিকট দাঁড় করানো ছিল। এসময় বাসের চালক বাশার (৩২), সুপারভাইজার আঃ রহিম (৩৫) ও হেলপার আতাউর (৩৫) ও জিহাদ ওরফে শাহিন (৩৮) ঘুমিয়ে ছিল। এ অবস্থায় একদল ছিনতাইকারি ওই বাসে ওঠে চালকসহ অপর সদস্যদের হাত, পা ও চোখ বেঁধে গাড়ির পিছনে ছিটের নিচে লুকিয়ে রাখে। পরে ওই ছিনতাইকারি দল বাসের চালক ও হেলপার সেজে বিভিন্ন রুটে যাত্রি উঠানামা ও যাত্রিদের জিম্মি করে টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেয়। এ অবস্থায় (আজ) সোমবার দুপুর ২টার দিকে ভৈরব-ময়মনসিংহ সড়কের পুলেরঘাট নামক স্থানে ছিনতাইকৃত বাসটি পৌঁছলে বাসের ভেতরে থাকা কাইয়ুম নামে এক যাত্রি চিৎকার করলে স’ানীয় লোকজন বাসটিকে আটক করে।

পরে পুলিশ গিয়ে ছিনতাই চক্রের সদস্য কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার পান্টিবাজার গ্রামের কাফিল উদ্দিন খানের ছেলে মেরাজ উদ্দিন (২৫) কে গ্রেপ্তার করে ও বাসের পিছনের ছিট থেকে ওই ৪ জনকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

পাকুন্দিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান আল মামুন বলেন, ছিনতাইকারি চক্রের একজনকে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ঘটনায় জড়িত অন্যদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:২৫ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৫