| বিকাল ৪:৫৮ - সোমবার - ২২শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৭ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১৫ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

শেরপুরে বেতন বৈষম্য দূর করার দাবিতে সরকারি কলেজ শিক্ষকদের কর্মবিরতি ও মানববন্ধন : ক্লাশ ও পরীক্ষা গ্রহণ বন্ধ

শেরপুর প্রতিনিধি,১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫, শনিবারঃ জাতীয় বেতন কাঠামোয় বৈষম্যের প্রতিবাদে এবং সিলেকশন গ্রেড ও টাইম স্কেলের দাবিতে শেরপুরে সরকারি কলেজ শিক্ষকরা দুদিনের কর্মবিরতি পালন শুরু করেছেন। ফলে আজ ১৯ সেপ্টেম্বর শনিবার জেলা সদর ও শ্রীবরদীর তিনটি সরকারি কলেজে সকল ক্লাশ ও পরীক্ষা গ্রহণ বন্ধ ছিল। বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতি এ কর্মবিরতি পালনের ডাক দিয়েছে।
সমিতি সূত্রে জানা গেছে, অষ্টম জাতীয় বেতন কাঠামোতে সিলেকশন গ্রেড বাতিল করে সরকারি কলেজ শিক্ষকদের সঙ্গে অন্য ক্যাডারের বৈষম্য সৃষ্টি করা হয়েছে। এরই প্রতিবাদে বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির আহবানে শেরপুর সরকারি কলেজ, সরকারি মহিলা কলেজ ও শ্রীবরদী সরকারি কলেজে আজ শনিবার শিক্ষকরা কর্মবিরতি পালন করেন।
ফলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষ স্নাতক সম্মান পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়নি। আজ শনিবার থেকে সারাদেশে কলেজ পর্যায়ে এ পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিল। একইসঙ্গে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকোত্তর বিভিন্ন বর্ষের পরীক্ষাও স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে।
আজ শনিবার দুপুরে শেরপুর সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণে শিক্ষকরা মানববন্ধন করেন। এসময় বক্তব্য দেন কলেজের অধ্যক্ষ ড. এ. কে. এম. রিয়াজুল হাসান, উপাধ্যক্ষ মো. ছারওয়ার জাহান, শিক্ষক মো. আব্দুর রউফ, এ. কে. এম. জাকারিয়া হোসেন, আক্রাম হোসাইন, আব্দুর রশিদ, মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, সখিনা আখতার, শিব শংকর কা্রুয়া, আব্দুল আলীম প্রমুখ।
শেরপুর সরকারী কলেজের অধ্যড়্গ ড. এ. কে. এম. রিয়াজুল হাসান বলেন, কেন্দ্রিয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে শেরপুর জেলার তিনটি সরকারি কলেজে আজ শনিবার কর্মবিরতি পালন করা হয়েছে। আগামীকাল রোববারও অনুরূপ কর্মবিরতি পালন করা হবে বলে তিনি জানান।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:৩৬ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৫