| রাত ১১:০২ - বুধবার - ১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১১ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

মক্কার হেরেম শরীফে ক্রেন ভেঙে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১০৭, আহত ২৩৮

সৌদি আরবের মক্কা নগরীর পবিত্র কাবা শরিফ ঘিরে থাকা মসজিদ আল-হারামে ক্রেন ভেঙে এখন পর্যন্ত অন্তত ১০৭ জন নিহতের খবর নিশ্চিত করেছে দেশটির সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষ। দূর্ঘটনায় অন্তত ২৩৮ জন আহত হওয়ার কথা নিশ্চিত করেছে সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষ।

শুক্রবার সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজের অল্প সময় আগে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রবল ঝড়ের কারণেই ক্রেন ভেঙে এ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে বলে সৌদি সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে।

আহত ২৩৮ জনের মধ্যে অন্তত ৪০ জন বাংলাদেশি রয়েছেন বলে সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ নিশ্চিত করেছেন।

এই মাসেই মুসলিমদের হজ্ব পালনের পূব প্রস্তুতিতেই এ দূর্ঘটনা ঘটল। লতি মাসের শেষ দিকে পবিত্র হজ পালনে লাখো মুসল্লি জড়ো হতে শুরু করেছেন মক্কায়।

প্রতি বছর ৩০ থেকে ৪০ লাখ মুসলমান হজ পালন করতে বিশ্বের সর্ববৃহৎ এই মসজিদে সমবেত হন। এবার প্রায় এক লাখ বাংলাদেশির হজে অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে।

টুইটারে ছড়িয়ে পড়া কয়েকটি ছবিতে দেখা যায়, হজের ইহরাম পরিহিত রক্তাক্ত বহু মানুষের দেহ কংক্রিটের স্তূপের মধ্যে পড়ে আছ। ছাদ ভেঙে নেমে আসা লাল রঙের একটি বিশাল ক্রেইনের অংশবিশেষও এসব ছবিতে দেখা যাচ্ছে।

স্থান সঙ্কুলান না হওয়ায় বেশ কিছুদিন ধরেই এ মসজিদ সম্প্রসারণের কাজ চলছিল। এই নির্মাণ কাজের জন্য বিরাট আকৃতির কয়েকটি ক্রেনও সেখানে রাখা ছিল বলে রয়টার্সের এক ছবিতে দেখা যায়।

এক প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, পৌনে ৬টার দিকে একটি ক্রেইন মসজিদের ওই অংশের চতুর্থ তলার ওপর আছড়ে পড়ে। হজে আসা মুসল্লিরা মাগরিবের নামাজের আগে জড়ো হওয়ায় সে সময় ওই অংশটি ছিল বহু মানুষে পূর্ণ।

এমনিতেই মসজিদ আল হারামে মুসল্লিদের ভিড় থাকে। এর মধ্যে হজ মৌসুম হওয়ায় শুক্রবার মুসল্লির সমাগম ছিল আরও বেশি।

দুর্ঘটনার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবি ও ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, হজের ইহরাম পরিহিত রক্তাক্ত পূণ্যার্থীদের দেহ কংক্রিটের স্তূপের মধ্যে পড়ে আছ। পড়ে আছে ছাদ ভেঙে ছিঁড়ে পড়া লাল রঙের বিশাল ক্রেনটির অংশবিশেষও।

এ দুর্ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন মক্কার গভর্নর যুবরাজ খালেদ আল ফয়সাল। একই সঙ্গে দুর্ঘটনায় শোকও জানিয়েছেন তিনি।

দুর্ঘটনার খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে ছুটে যায় জরুরি উদ্ধারকারী বাহিনী। এখন উদ্ধার তৎপরতা চলছে বলে জানানো হচ্ছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ১১:১৪ পূর্বাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৫