| বিকাল ৩:৩৯ - রবিবার - ৫ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ - ২২শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৩ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

বঙ্গবন্ধু’র দুই খুনি পাকিস্তানে, ফেরাতে সহযোগিতা মিলছে না-সংসদে প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক : ২ সেপ্টেম্বর ২০১৫, বুধবার,

প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা বিদেশে পলাতক বঙ্গবন্ধুর খুনীদের দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের রায় কার্যকরের দৃঢ় অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন। খুনীদের আশ্রয়দাতা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডার সমালোচনা করে তিনি বলেন, অত্যন্ত দুঃখের বিষয় যারা নিজেদের সভ্য ও উন্নত দেশ হিসেবে দাবি করে, তারাই  এসব ঘৃণ্য ঘাতকদের আশ্রয় দিয়েছে। কেন আমেরিকা ও কানাডার মতো দেশ এটা করছে তা আমার জানা নেই। ওইসব দেশের সরকারের কাছে অনুরোধ করেছি, কিন্তু তারা কোন সহযোগিতা করছে না। যে কোন কারণেই হোক আমাদের সহযোগিতা করছে না এটাই হচ্ছে বাস্তবতা। এটা দেশবাসীর জানা দরকার। এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বিচার হয়েছে, কয়েকজনের রায় কার্যকর করা হয়েছে। পলাতক খুনীদের মধ্যে যারা বিদেশে পলাতক রয়েছে তাদের ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে। তিনি বলেন, খুনি খুনিই, সে যেখানেই থাকুক। আমরা অনেকবার সেসব দেশের সরকারের কাছে খুনিদের ফিরিয়ে দিতে অনুরোধ করেছি, তারা দেয়নি। আমাদের চেষ্টা এখনও অব্যহত রয়েছে। আমরা কূটনৈতিক ও আইনগতভাবে খুনীদের ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছি। বুধবার সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য বেগম ফজিলাতুন নেসা বাপ্পি ও সাবেক চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আবদুস শহীদের সম্পুরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী জানান, বর্তমানে বঙ্গবন্ধুর দন্ডপ্রাপ্ত খুনিদের মধ্যে ২ জন আমেরিকায়, ১ জন কানাডায়, ২ জন লিবিয়ায় ছিল, পরে পাকিস্তানে গেছে। বিভিন্ন মাধ্যমে জানা গেছে, তারা পাকিস্তানে আছে। যদিও পাকিস্তান সরকার তা স্বীকার করে না। এ প্রসঙ্গে ওয়ান ইলেভেনের সময় চ্যানেল আইয়ে খুনী রশিদের সাক্ষাতকার প্রচারের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, চ্যানেল আই’র তৃতীয় মাত্রায় খুনী কর্ণেল রশিদ চৌধুরীর সাক্ষাতকার প্রচার করা হয়েছে। সাক্ষাতকার গ্রহণকারীকে জিজ্ঞাসা করলেই জানা যাবে খুনী রশিদ কোথায় আছে। তবে জেনেছি, খুনী রশিদ ওই সময় লিবিয়ায় থাকলেও এখন পাকিস্তানে রয়েছে। বাকি দুই খুনী কোথায় পালিয়ে রয়েছে সেই তথ্য আমরা এখনও জানতে পারিনি।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:০৭ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০২, ২০১৫