| রাত ৮:৩৯ - রবিবার - ৫ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ - ২২শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৩ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

ভূমধ্যসাগরে নিখোঁজ ভৈরবের ইমরান

 

সিম্মী আহাম্মেদ, কিশোরগঞ্জ, ০১ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ মঙ্গলবার,
লিবিয়ার জুয়ারা শহরের পাশে ভূমধ্যসাগরে ইউরোপে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের নিয়ে নৌকাডুবির ঘটনায় কিশোরগঞ্জের ভৈরবের এক যুবক নিখোঁজ রয়েছেন। নিখোঁজ ওই যুবকের নাম ইমরান সিকদার (২৮)। তিনি উপজেলার লুন্দিয়া গ্রামের মো. আলকাছ সিকদারের ছেলে। ডুবে যাওয়া অপর নৌযান থেকে বেঁচে যাওয়া একই গ্রামের আবদুল মজিদের ছেলে জিলানী ফোন করে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এদিকে পরিবারের উপার্জনড়্গম ব্যক্তিকে সাগরে হারিয়ে ইমরানের পরিবারে চলছে মাতম। নৌকাডুবিতে মৃত্যু হলেও সনত্মানের লাশ দেখতে চান মা-বাবা। আর যদি ইমরান মারা না গিয়ে থাকে, তবে তার সন্ধান চান পরিবারের সদস্যরা।
স্বজনেরা জানান, ইতালির উপকূল লামপেদুসা এলাকার কাছাকাছি ডুবে যাওয়া নৌযানে থাকা লুন্দিয়া গ্রামের যুবক জিলানীকে সাগর থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে ইতালির একটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তবে লিবিয়ার উপকূলে ডুবে যাওয়া নৌযানটিতে থাকা একই গ্রামের ইমরান সিকদারের কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। ডুবে যাওয়া নৌযান থেকে নিখোঁজ হওয়ায় ইমরানের পরিবারে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।
ইমরানের বাবা আলকাছ সিকদার বলেন, জমিজমা সব বিক্রি করে সংসারে সুখ আনার জন্য ছেলেকে বিদেশে পাঠিয়েছিলাম। কিন্ত সুখের বদলে এখন আমি ছেলের লাশও পাচ্ছি না। আমি সরকারের কাছে আমার ছেলের সন্ধান চাই।
নিখোঁজ ইমরানের নানা হাজী দীন ইসলাম সিকদার ও ইমরানের বড় ভাই আবুল বাসার জানান, সর্বশেষ কথা বলার সময় ইমরান জানিয়েছিলেন যে, ট্রলার দিয়ে সে ইতালির উদ্দেশ্যে যাত্রা করবে। গত ২৫ আগস্টের পর থেকে তার সঙ্গে আর যোগাযোগ করা যাচ্ছে না। জীবিত বা মৃত যেটাই হোক ইমরানের মুখ দেখতে চান তারা।
ইতালির লামপেদুসার এলাকায় ডুবে যাওয়া নৌযান থেকে উদ্ধার হওয়া জিলানীর বাবা আবদুল মজিদ বলেন, আমার ছেলেকে অসুস্থ অবস্থায় ইতালির একটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। সে আমাকে ফোন করে এ কথা জানিয়েছে। তিনি জানান, ইতালির উদ্দেশ্যে পাড়ি দেওয়া প্রথম ট্রলারটিতে জিলানী ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, দ্বিতীয় ট্রলারটিতে ইমরান ছিল। আবদুল মজিদ বলেন, আমার যেটুকু জমি ছিল তার সবটা বিক্রি করে জিলানীকে বিদেশে পাঠিয়েছি। দুর্ঘটনার পর আমার সনত্মান বেঁচে আছে, এটিই আমার কাছে সবচেয়ে বড় সুখের খবর। এ জন্যে আলস্নাহর কাছে শোকরিয়া জানাই।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:৫৭ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০১, ২০১৫