| সন্ধ্যা ৬:৪৯ - সোমবার - ৬ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ - ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৪ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

নদী তীরের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান সরাতে কমিটি

অনলাইন ডেস্ক, ২৬ আগস্ট ২০১৫, বুধবার, 

নদীর তীরবর্তী স্থানে অননুমোদিতভাবে নির্মিত ধর্মীয় ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান স্থানান্তর অথবা অপসারণের বিষয়ে সরেজমিন পরিদর্শন ও ব্যবস্থা গ্রহণের লক্ষ্যে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি সারা দেশে সংশ্লিষ্ট স্থানে কাজ করবে। কমিটি এক মাসের মধ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ে তাদের প্রতিবেদন পেশ করবে।  আজ বুধবার নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে নদীর তীরে স্থাপিত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ বিষয়ে এক মতবিনিময় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে সরকারি এক তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়েছে। নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব নাসির আরিফ মাহমুদ কমিটির আহ্বায়ক এবং নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব নূর-উর-রহমান সদস্যসচিব নিযুক্ত হন।  তথ্য বিবরণীতে আরো বলা হয়েছে, ঢাকা নদীবন্দর এলাকার তীরভূমিতে অননুমোদিত ৩০টি ধর্মীয় ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। বিআইডব্লিউটিএ এ পর্যন্ত নদীতীরে চার হাজার ৭৪০টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ এবং ২১৫ একর জমি উদ্ধার করেছে। সভায় পানিসম্পদমন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, সংসদ সদস্য বেগম সানজিদা খানম, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব শফিক আলম মেহেদী, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. জাফর আহমেদ খান, মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর এম মোজাম্মেল হক, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ও বায়তুল মোকাররম মসজিদের খতিবের প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:১২ অপরাহ্ণ | আগস্ট ২৬, ২০১৫