| বিকাল ৩:০০ - মঙ্গলবার - ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ১২ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৩০শে সফর, ১৪৪৪ হিজরি

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে একাদশ শ্রেনীর ওরিয়েন্টেশন ও নবীনবরণ

অনলাইন ডেস্ক,২৭ জুলাই ২০১৫, সোমবার

 কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ আযোজিত একাদশ শ্রেনীর শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন ও নবীনবরণ ২০১৫  আজ সোমবার অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপসি’ত ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের(বাকৃবি) উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ আলী আকবর।
সকাল ১০টায় বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন মিলনায়তনে কলেজের অধ্যক্ষ ড. এম আতাউর রহমান এর সভাপতিত্বে ওরিয়েন্টেশন ও নবীনবরণ – ২০১৫ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপসি’ত ছিলেন ও কলেজ গভর্নিং বডির সম্মানিত চেয়ারম্যান ও পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেন, বাকৃবির ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা প্রফেসর ড. মোঃ জসীম উদ্দিন খান,
শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন প্রফেসর ড. খন্দকার শরীফুল ইসলাম, প্রফেসর ড. এ.কে.এম.আজদ-উদ-দৌলা প্রধান, কলেজের শিক্ষক আবু রায়হান, ভাস্কর সেন গুপ্ত, বিশ্বাস মোঃ আব্দুলস্নাহ, দ্বাদশ শ্রেনীর ছাত্র আহসানুল হাসান হাবিব, নবীনদের পক্ষে মোতাকাব্বির ও খন্দকার ইফফা। নবীণদের শপথবাক্য পাঠ করান কলেজের অধ্যক্ষ ড. এম আতাউর রহমান।
উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ আলী আকবর বলেন শিক্ষার্থীদের কঠোর পরিশ্রম, অধ্যবসায় ও অভিভাবকদের সার্বিক সহযোগিতায় কলেজের ভাল ফলাফল নিশ্চিত হবে। আমি প্রত্যাশা করি কলেজ বর্তমান গভর্নিং বডির সম্মানিত চেয়ারম্যানসহ সকল সদস্যগণের সঠিক দিক নির্দেশনায় এবং শিক্ষক-অভিবাবকদের সার্বিক সহযোগিতায় এ কলেজ থেকে তৈরী হবে বিশ্বমানের নাগরিক। শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া, সংস্কৃতিচর্চা, মণনশীলতায় দেশের ঐতিহ্যবাহী এ কলেজ উত্তরোত্তর আরও সমৃদ্ধ হবে । তিনি আরও বলেন তোমরা বেশি বেশি বই পড়, মেধার বিকাশ ঘটাও, দেশকে ভালোবাস এবং ভবিষ্যৎ সুনাগরিক হিসেবে নিজেকে প্রস’ত করো।
কলেজ গভর্নিং বডির সম্মানিত চেয়ারম্যান ও পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস-চ্যান্সেলর বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর ড. সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেন তাঁর বক্তব্যে বলেন এ কলেজকে আইন-কানুন, শৃঙ্খলা, নিয়মানুবর্তিতা ও লেখাপড়ায় পরিপূর্ণ এক রেজিমেন্টাল শিড়্গা প্রতিষ্ঠানে পরিনত করতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। শুধু লেখাপড়ার জন্যই এ কলেজ। পড়াশুনার সর্বাধুনিক ডিজিটাল প্রযুক্তির সমন্নয় এখানে ঘটানো হয়েছে। আমি আশা করি, এখান থেকে তোমরা নিজেদের যোগ্যতম পরিপূর্ণ একজন মানুষ হিসেবে তৈরী করবে। দেশের ইতিহাস, মুক্তিযুদ্ধ, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে জানবে। তবে তোমাদের জন্য সতর্কবাণী হচ্ছে, কলেজের আইন ভাংলেই শাস্তি।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:১২ অপরাহ্ণ | জুলাই ২৭, ২০১৫