| রাত ১২:৪২ - শুক্রবার - ৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৬ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

প্রায় সাত বছর পর টি২০-তে মুখোমুখি বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকা

  অনলাইন ডেস্ক,  ৪ জুলাই ২০১৫, শনিবার:

 প্রায় সাত বছর পর ক্রিকেটের ছোট ফরম্যাট টুয়েন্টি টুয়েন্টিতে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকা। দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথমটিতে আগামীকাল লড়বে এই দু’দল। মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে দুপুর ১টায় মাঠে নামবে বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকা।
আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৪২টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। এরমধ্যে মাত্র দু’বার দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে লড়াই করার সুযোগ হয়েছে টাইগারদের। সুযোগ হওয়া দু’টি ম্যাচেই হেরেছিলো বাংলাদেশ।
২০০৭ সালের সেপ্টেম্বরে টি-২০ বিশ্বকাপের প্রথম আসরে দক্ষিণ আফ্রিকার সাথে দেখা হয় বাংলাদেশের। সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে সেটিই ছিলো দু’দলের প্রথম সাক্ষাৎ। আর ঐ দেখায় জয়ের স্বাদটা পায় প্রোটিয়াসরা। কেপটাউনে ৭ উইকেটে ম্যাচটি জিতে গ্রায়েম স্মিথের দল।
এরপর ২০০৮ সালের নভেম্বরে দি¦তীয়বারের মত মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকা। সেবার দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যায় বাংলাদেশ। ঐ সফরের একমাত্র টি-২০ ম্যাচে ১২ রানে হারে টাইগাররা।
এরপর আর টি-২০ ফরম্যাটে দেখা হয়নি বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকার। ফলে প্রায় সাত বছর আবারো ছোট ফরম্যাটে লড়বে দু’দল। দেশের মাটিতে পূর্ণাঙ্গ সিরিজের কারণেই মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ও প্রোটিয়াসরা।
লড়াই বেশ জমজমাট হবে বলেই ধারণা ক্রিকেট ভক্তদের। কারণ বর্তমানে তুখোড় ফর্মে রয়েছে বাংলাদেশ। তবে সেটি ওয়ানডেতে। টি-২০তে সেই ফর্ম বাংলাদেশ প্রদর্শন করতে পারে কি-না, সেটিই এখন দেখার বিষয়। তবে তা প্রর্দশন করতে বেশ কাট-খড় পোড়াতে হবে টাইগারদের। কারণ সামনে যে দক্ষিণ আফ্রিকার মত বড় চ্যালেঞ্জ। সেটি উৎরে যেতে হলে নিজেদের সেরাটাই দিতে হবে বাংলাদেশকে।
সেরাটা দিতে প্রস্তত বাংলাদেশ দলও। নিজেদের সর্বশেষ ও একমাত্র টি-২০তে সেটি করেও দেখিয়েছে মাশরাফির দল। গত এপ্রিলে পাকিস্তানকে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। সেই জয়ের আত্মবিশ্বাস এখনো টাটকা রয়েছে বাংলাদেশের।
বাংলাদেশ যেখানে আত্মবিশ্বাসী, সেখানে টি-২০ ফরম্যাটে দক্ষিণ আফ্রিকার সাম্প্রতিক ফর্ম মোটেও ভালো নয়। শেষ পাঁচ ম্যাচে মাত্র ১টি জয় পেয়ে প্রোটিয়াসরা। অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শেষ দুই সিরিজেও হেরেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।
তাই ব্যর্থতার খোলস থেকে বের হয়ে আসতে বাংলাদেশের বিপক্ষে জ্বলে উঠতে মরিয়া দক্ষিণ আফ্রিকা। পরপর দুই সিরিজে ব্যর্থতার জ্বালা, বাংলাদেশ বিপক্ষে সিরিজ জিতে পুষিয়ে নিতে চাইবে ফাফ ডু প্লেসিসের দল। এজন্য পুরোপুরি প্রস্তুতও ডুমিনি-ডি ভিলিয়ার্সরা।
প্রস্তুতিতে শতভাগ, তার প্রমাণ বাংলাদেশ সফরের একমাত্র টি২০ ম্যাচে দিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। বিসিবি একাদশকে ৯৯ রানে অলআউট করে দিয়ে, অনেকটা বিনা উইকেটেই ম্যাচ জিতে নেয় তারা। দুই ওপেনার কুইন্টন ডি কক ও এবি ডি ভিলিয়ার্স রিটায়ার্ড অবসর নেয়াতে জয়ের ব্যবধানটা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৮ উইকেটে।
যাই হোক না কেন, বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকার দুই ম্যাচের টি-২০ সিরিজটি যে কিছুটা হলেও জমজমাট হবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। আর সেই জমজমাটের আবহ কতটা বিরাজ করে মিরপুর স্টেডিয়াম জুড়ে, সেটিই কাল দেখা যাবে।
বাংলাদেশ স্কোয়াড (সম্ভাব্য) : মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, লিটন কুমার দাস, রনি তালুকদার, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, আরাফাত সানি, জুবায়ের হোসেন, সোহাগ গাজী, রুবেল হোসেন ও মুস্তাফিজুর রহমান।
দক্ষিণ আফ্রিকা স্কোয়াড (সম্ভাব্য) : ফাফ ডু প্লেসিস (অধিনায়ক), কাইল এ্যাবট, কুইন্টন ডি কক (উইকেটরক্ষক), এবি ডি ভিলিয়ার্স, জেপি ডুমিনি, বুরান হেনড্রিকস, ইড্ডি লি, ডেভিড মিলার, ক্রিস মরিস, ওয়েন পার্নেল, এ্যারন ফাঙ্গিসো, কাগিসো রাবাদা, রিলি রোসৌ ও ডেভিড ওয়াইস।(বাসস) :

সর্বশেষ আপডেটঃ ১১:২৩ অপরাহ্ণ | জুলাই ০৪, ২০১৫