| রাত ৯:২৪ - শনিবার - ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৮ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

ময়মনসিংহে অটোবাইক চলাচলের দাবীতে শ্রমিকের বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টার, ১ জুলাই ২০১৫, বুধবার:
ময়মনসিংহ শহরে ব্যাটারিচালিত অটো বাইক চলতে দেয়া না হলে বৃহত্তর কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচীর মাধ্যমে শহর অচল করে দেয়ার হুমকী দিয়েছে বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রভূক্ত ময়নসিংহের বিভিন্ন ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ। তারা বলেন, হঠাৎ প্রায় ৭ হাজার অটো বাইক বন্ধ করে দেয়ায় প্রায় ১২ হাজার মালিক-শ্রমিক বর্তমানে অনাহারে অর্ধাহারে দিন কাটাচ্ছে। এসব মালিক শ্রমিকরা যদি ঈদ করতে না পারে তাহলে যারা অটো বন্ধ করে দিয়েছেন তাদেরকেও তারা ঈদ করতে দেবে না বলেও হুমকী দিয়েছেন শ্রমিকরা। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে বন্ধ ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক চলাচলের প্রতিবন্ধকতা দূর করে পৌরসভা থেকে লাইসেন্স প্রদাসনসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস’া নেয়ার জোর দাবী জানান।
ময়মনসিংহ শহরে অবিলম্বে ব্যাটারিচালিত অটো বাইক চলতে দেয়ার দাবীতে গতকাল বুধবার ১ জুলাই দুপুরে শহরের রেলওয়ে কৃষ্ণচূড়া চত্বরে ব্যাটারিচালিত অটো বাইক মালিক-শ্রমিকদের বিক্ষোভ সমাবেশে নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। সমাবেশ শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল শহরের স্টেশন রোড, গাঙ্গিনারপাড়, নতুন বাজার, টাউনহল মোড়, কাচারী ও কালিবাড়ি ও মহারাজা রোড হয়ে কৃষ্ণচূড়া চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। মিছিল ও সমাবেশে ২ সহস্রাধিক ব্যাটারিচালিত অটো বাইক মালিক-শ্রমিক, জেলা দোকান কর্মচারী ও হোটেল রেঁসে-ারা শ্রমিক ইউনিয়নের শ্রমিক অংশ নেন।
ময়মনসিংহ জেলা ব্যাটারী চালিত অটো বাইক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি দীলিপ সরকারের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সহ-সভাপতি ফয়জুর রহমান ফয়েজ, জেলা ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি মাহবুব বিন সাইফ, জাতীয় শ্রমিক পার্টির নেতা কাজী ফজলুর রহমান বেণু, জেলা টিইউসি’র সাধারণ সম্পাদক এনায়েত হোসেন খান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোক্তার হোসেন, অটো বাইক মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভাপতি আব্দুল মজিদ, যুব ইউনিয়নের সভাপতি খোকন, নিউ অটো বাইক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া প্রমূখ।
সমাবেশে নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, ময়মনসিংহর প্রশাসন গরীব খেটে খাওয়া অসহায় ব্যাটারিচালিত অটো বাইক চালক ও মালিকদের প্রতি যেন দয়াহীন হয়ে পড়েছেন। অধিকাংশ অটো বন্ধ করে দেয়ায় শহরে তীব্র গণপরিবহন সংকট দেখা দিয়েছে। ফলে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীসহ সর্বস-রের মানুষের সীমাহীন দুর্ভোগ নেমে এসেছে।
শহরে যানজট নিরসনে জন্য প্রশাসনের নির্দেশে গত ২১ জুন রবিবার থেকে লাইসেন্সবিহীন ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক চলাচল বন্ধ করে দেয় পুলিশ। ফলে প্রায় ৭ হাজার ইজিবাইক চালক ও প্রায় ৫ হাজার মালিকসহ ১২ হাজার পরিরার মানবেতর জীবযাপন করছে। শহরের রিকশা প্রায় কমে গেছে। তাই ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকই এখন ময়মনসিংহ শহরের একমাত্র গণপরিবহণে পরিণত হয়েছে। এই গণপরিবহণ সংকটের কারণে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী, শ্রমজীবীসহ সর্বস-রের মানুষ চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। অন্যদিকে ইজিবাইক কমে যাওয়ায় রিকশাচালকরা সুযোগের সদ্ব্যবহার করছে। তারা দ্বিগুণ থেকে তিন গুণ বেশি ভাড়া নিচ্ছে।
প্রশাসনের একাধিক দায়িত্বশীল ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, যানজট নিরসন করে শহরবাসীর ভোগানিত্ম রোধে লাইসেন্সবিহীন ইজিবাইক চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ##

সর্বশেষ আপডেটঃ ১০:০৮ অপরাহ্ণ | জুলাই ০১, ২০১৫