| বিকাল ৩:২৮ - বুধবার - ৩রা আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৪ঠা মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

ছয় ম্যাজিস্ট্রেটের খাদ্য গুদাম পরিদর্শন ময়মনসিংহের খাগডহর সিএসডি গুদামে দিনভর উত্তেজনা, ট্রাক শ্রমিক ধর্মঘট

স্টাফ রিপোর্টার, ৩০ জুন ২০১৫, মঙ্গলবার:
খাদ্য অধিদপ্তরের অধীন ময়মনসিংহের খাগডহরে কেন্দ্রীয় খাদ্য গুদামে (সিএসডি) খাওয়ার অযোগ্য ৩০০ টন চাল মজুত রাখার অভিযোগে গতকাল সারাদিন গুদামে তীব্র উত্তেজনা বিরাজ করে। পচা চাল পরিবহন করার অস্বীকৃতি জানিয়ে বিক্ষুদ্ধ ট্রাক শ্রমিকরা মঙ্গলবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন- ধর্মঘট পালন করে। ম্যাজিস্ট্রেটগণ গুদাম পরিদর্শন করেছেন।
ট্রাক শ্রমিক নেতা আব্দুল গফুর জানান, খাগডহর সিএসডি গুদামে পচা চাল অন্যত্র সরিয়ে দেয়া হ”েছ এই সংবাদ পেয়ে মঙ্গলবার সকাল ট্রাক শ্রমিকরা এই গুদাম থেকে মালামাল পরিবহন বন্ধ রেখে ধর্মঘটের ডাক দেয়। এ নিয়ে সিন্ডিকেড চক্রের সাথে ট্রাক শ্রমিকদের মাঝে কথা কাটাকাটিসহ তীব্র উত্তেজনা দেখা দেয়। জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মাহবুবুর রহমানের আন-রিক প্রচেষ্টায় অবশেষে মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে শ্রমিকরা ধর্মঘট তুলে নেয়।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক জানান, আমি দায়িত্ব নিয়েই বলছি খাগডহর সিএসডি গুদামে পচা বা অতিরিক্ত চাল থাকার কোনো প্রশ্নই উঠেনা। যে অভিযোগ করা হয়েছে তা শতভাগ ভূয়া।
মঙ্গলবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন- ৬জন ম্যাজ্রিস্ট্রট গুদাম পরিদর্শন করেছেন। পরিদর্শনকারী ম্যাজিস্ট্রেট আল-ইমরান র”হুল ইসলাম জানান, তারা প্রতি অর্থ বছরের শেষে র”টি ওয়ার্ক হিসেবে মঙ্গলবার গুদাম পরিদর্শন করেছেন। পরিদর্শনে তারা কোনো অতিরিক্ত ও পচা চাল থাকার কোনো অসি-ত্ব পাননি।
জেলা আওয়ামী লীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক ফার”ক হোসেন জানান, খাগডহর কেন্দ্রীয় খাদ্য গুদামের (সিএসডি) ৪৫, ৪৬ ও ৫৩ নং গুদামে দীর্ঘদিন ধরে একটি সিন্ডিকেট চক্র খাওয়ার অযোগ্য ৩০০ টন চাল ক্রয় করে মজুত করে রাখার অভিযোগ পান। সরকারের চাল ক্রয় নীতির আওতায় ওই চাল পুনরায় গুদামে বৈধভাবে রাখার গোপন সংবাদ পেয়ে গত ২৮ জুন দুপুরে জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এহতেশামূল আলম, অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হেসেন বাবুল, শওকত উসমান লিটন ও জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক রকিবুল ইসলাম রাকিব খাগডহর সিএসডি পরিদর্শনে যান। এসময় গুদামের ম্যানেজার সানোয়ার হোসেন গুদামে খাওয়ার অযোগ্য ৩০০ টন চাল রক্ষিত আছে বলে স্বীকার করেন আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের কাছে। পরে গুদাম ম্যানেজার সানোয়ার হোসেন পচা চাল মজুত থাকার কথা অস্বীকার করেন।
সরকারী গুদামে পচা চাল রাখতে না পারে সে লক্ষ্যে জেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ ২৯ জুন জেলা প্রশাসক এবং দুর্নীতি দমন বিভাগে পৃথক দুটি লিখিত অভিযোগ করেন। #

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:৫৮ অপরাহ্ণ | জুন ৩০, ২০১৫