| সকাল ৮:০২ - বৃহস্পতিবার - ১৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ৩রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৯শে মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

গৌরীপুরে এসএসসি’র একাডেমিক ট্রান্সক্রিপ্ট ভুল : শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি

সাজ্জাতুল ইসলাম সাজ্জাত, গৌরীপুর সংবাদদাতা, ২৯ জুন ২০১৫, সোমবার:
ঢাকা শিক্ষা বোর্ড থেকে সরবরাহকৃত এবার এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের একাডেমিক ট্রান্সক্রিপ্টে গড়মিল দেখা গেছে। যা ‘শারীরিক শিক্ষা, ও স্বাস্থ্য ও ক্রীড়া’ বিষয়ে লেটার গ্রেডের সাথে গ্রেট পয়েন্টের কোন মিল নেই। ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার বিভিন্ন বিদ্যালয়ের এই চিত্র দেখা গেছে। ফলে এনিয়ে উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণীতে ভর্তি হতে শিক্ষার্থীরা চরম ভোগান্তিতে পড়েছে। এদিকে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এই ভুল একাডেমিক ট্রান্সক্রিপ্টগুলো শিড়্গার্থীদের মাঝে বিতরণ করছেন না। তারা এগুলো শিড়্গা বোর্ডে ফেরৎ পাঠানোর প্রস’তি নিচ্ছেন।
গৌরীপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে খোজঁ নিযে জানা গেছে, এবার ওই বিদ্যালয়ের ১৫৬ জন উত্তির্ণ শিক্ষাথীর ট্রান্সক্রিপ্টের মধ্যে ৮৭টি ট্রান্সক্রিপ্টে শুধু মাত্র ‘শারীরিক শিক্ষা, ও স্বাস্থ্য ও ক্রীড়া’ বিষয়ে লেটার গ্রেডের সাথে গ্রেট পয়েন্টের কোন মিল নেই। দেখা গেছে, শিক্ষার্থী খাদিজা আক্তার, রোল ৬০৩৪০০ ঢাকা বোর্ড তার ‘শারীরিক শিক্ষাও স্বাস’্য ও ক্রীড়া’ বিষয়ে লেটার গ্রেড ‘এ পস্নাস’ কিন্তু গ্রেট পয়েন্ট ৫ এর স’লে লিখা হয়েছে ৩.৫। শিক্ষার্থী পলি আক্তার লেটার গ্রেড ‘এ’ কিন’ গ্রেট পয়েন্ট ৪ এর স’লে লিখা হয়েছে ৫। এ রকম তথ্য পাওয়া গেছে উপজেলার বিভিন্ন বিদ্যালয় থেকে। গৌরীপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এনামুল হক সরকার জানান, এই ভুল একাডেমিক ট্রান্সক্রিপ্টগুলো আমার শিড়্গা বোর্ডে ফেরৎ পাঠাচ্ছি। সংশোধন হয়ে আসলে শিক্ষার্থীদের বিতরণ করবো। এখন শিক্ষার্থীরা উচ্চ মাধ্যমিকে ভর্তির জন্য শুধু বিদ্যালয় থেকে প্রসংশাপত্র দেয়া হচ্ছে।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, ভুল একাডেমিক ট্রান্সক্রিপ্টগুলো শিক্ষা বোর্ড ফেরৎ চেয়েছে। পুনরায় সংশোধন করে পাঠাবে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:৫৭ অপরাহ্ণ | জুন ২৯, ২০১৫