| সন্ধ্যা ৬:৫০ - সোমবার - ১৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৬ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

বাজিতপুরে সেহেরী ও তারাবীর সময় বিদ্যুৎ লোডশেডিং, জনভোগান্তি

বাজিতপুর সংবাদদাতাঃ ২২ জুন ২০১৫, সোমবার:
রোজা আসার সাথে সাথে গত কয়েক দিন ধরে নিয়ম আর অনিয়মের বিদ্যুৎ লোড শেডিংয়ের খেলায় পড়েছে বাজিতপুরের প্রায় ৯ হাজার বিদ্যুৎ গ্রাহক। প্রতিদিন সেহেরী, ইফতারী ও তারাবী নামাজের সময় বিদ্যুৎ চলে যায়।  কখন যায় কখন আসবে তার কোন সীমারেখা নেই। এসব কারনে রোজাদারগণ গরমের মধ্যে নামাজ পড়তে গিয়ে হাফিয়ে উঠেন। এদিকে বাজিতপুর উপজেলা ও অন্যান্য উপজেলায় পিডিপি, আরইবি জুন মাস ছাড়াও বিদ্যুৎ গ্রাহকদের বিদ্যুৎ না পেয়ে ভৌতিক দিতে হচ্ছে মাসের পর মাস ধরে। বৎসরে ২-১ বার মিটার রিডারগণ মিটার দেখে কি না তা নিয়ে বিদ্যুৎ গ্রাহকদের মধ্যে সন্দেহের সৃষ্টি হচ্ছে। অফিসে বসে বিদ্যুৎ অফিসের লোকজন বিদ্যুৎ বিল বা রিডিং দিয়ে থাকেন মনগড়া মতে। এরফলে বিদ্যুৎ গ্রাহকরা দীর্ঘ দিন ধরে প্রতারিত হচ্ছেন। অন্যদিকে মাত্রাতিরিক্ত বিদ্যুৎ লোড শেডিং এর কারনে যেমন বৃহৎ শিল্প, মাঝারি শিল্প, ক্ষুদ্র শিল্পের ব্যবসা ড়্গতি হচ্ছে। তেমন ভাবে কিছু দিন এভাবে চললে ব্যবসায়ীরা দেউলিয়া হয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। গত ৪-৫ দিন ধরে বিদ্যুতের উঠা-নামার কারনে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের লেখাপড়ার চরম ভোগানিত্মর মধ্যে পড়তে হচ্ছে। গতকাল সোমবার আবাসিক বিদ্যুৎ প্রকৌশলি জানান, ১ লাখ ৪৪ হাজার ভোল্ডের মধ্যে যান্ত্রিক ত্রটির কারনে প্রায় সময়ই লাইন বন্ধ করে কাজ করেন বলে উলেস্নখ করেন।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:০৫ অপরাহ্ণ | জুন ২২, ২০১৫