| সন্ধ্যা ৭:৪৬ - সোমবার - ৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৯ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

ফুলবাড়ীয়ায় তথ্য গোপন করে দখলীয় জমি বন্দোবস্ত ঃ ১০ পরিবারে আতংক

ফুলবাড়ীয়া ব্যুরো ঃ ২১ জুন ২০১৫, রবিবার:

উপজেলার কুশমাইল ইউনিয়নের ধামর গ্রামের ধামর মৌজার এস এ নং ৩৮ খতিয়ানের ৫৩৭ নং দাগের ৬ একর জমিতে আদালতের বায়না সূত্রে মালিক হয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে ১০ পরিবার বসবাস করে আসছে। তাদের দখলীয় জমি একটি প্রভাবশালী মহলের ইন্ধনে বন্দোবসত্ম দেয়ায় ১০ পরিবারে আতংক বিরাজ করছে। ২০ পরিবারকে জমি থেকে উচ্ছেদের জন্য এরই মধ্যে মামলা দিয়ে হয়রানী শুরম্ন করেছে।
ধামর মৌজার ৬ একর ৫৭ শতাংশ জমিতে পৈতৃক সূত্রে ২ একর ১৯ শতাংশ জয়নাল আবেদীন মুন্সী, আজিত উলস্নাহ শেক ২একর ১৯ শতাংশ ও মানিক মন্ডল ২ একর ১৯ শতাংশ জমি বায়না সূত্রে প্রাপ্ত হয়ে জমির মালিক হন। জানা যায় উক্ত জমি বকুল চন্দ্র্র নামীয় জমিদারের থাকার পরও তাদের অপরাপর জমি অধিগ্রহন হলেও এ জমি অধিগ্রহন হয় নাই। একটি প্রভাবশালী মহল উক্ত জমি ৩ জনের নামের বন্দোবসত্ম দিয়ে ১০ পরিবারকে জমি থেকে উচ্ছেদের জন্য এরই মধ্যে মামলাসহ নানান ভয়ভীতি প্রদর্শন শুরম্ন করেছে।  অবৈধভাবে বন্দোবসত্ম নেয়াদের সাথে একটি প্রভাবশালী মহল মোটা অংকের টাকা খরচ করছে। জমি থেকে উচ্ছেদের জন্য ২ টি মামলা দিয়ে ১০ পরিবারের নারী পুরম্নষকে হয়রানী করছে। যে কোন সময় বিরোধী জমি নিয়ে রক্তড়্গয়ী সংঘর্ষের আশংকা দেখা দিয়েছে।
এ ব্যাপারে আল আমিন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিড়্গক মোজাফফর আলী জানান, জমি নিয়ে আদালতে ডিক্রী আনা হয়েছে। এটা অধিগ্রহন করা কোন জমি না তারপরও একটি প্রভাবশালী মহল মোটা অংকের টাকা দিয়ে আমিসহ ১০ পরিবারকে ২ টি মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানী করা হচ্ছে। এরই মধ্যে প্রতিকারের আশায় বন্দোবসত্ম বাতিলের জন্য আবেদন করা হয়েছে। বন্দোবসেত্মর বিরম্নদ্ধে আদালতে একটি মামলা করা হয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:২৪ অপরাহ্ণ | জুন ২১, ২০১৫