| দুপুর ১:২১ - বুধবার - ৩রা আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৪ঠা মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

প্রবল বর্ষণে ময়মনসিংহ শহরে ভয়াবহ জলাবদ্ধতা ।। ট্রেন এবং যানবাহন চলাচল বিঘ্ন ।। জনজীবন অচল

মতিউল আলম, , ১৩ জুন ২০১৫, শনিবার,
শনিবার সকাল থেকে টানা প্রায় সাড়ে ৪ ঘন্টা প্রবল বর্ষণে ময়মনসিংহ শহর বৃষ্টির পানিতে সয়লাব হয়ে যায়। শহরের ৭০ ভাগ প্রধান প্রধান সড়ক ৩-৪ ফুট পানির নীচে ডুবে যায়। ফলে সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে শহরের লাখ লাখ মানুষ পানিবন্দী ছিল প্রায় ৮ ঘন্টা । এদিকে রেললাইনের ওপর পানি উঠায় ট্রেন চলাচল বিঘ্ন সৃষ্টি হয়। শনিবার সকাল থেকেই ট্রেন চলাচলে বিঘ্ন ঘটে। ফলে শহরের মানুষের জীবনযাত্রা অচল হয়ে পড়ে। বিশেষ করে স্কুল, কলেজগামী পরীক্ষার্থীরা বিপাকে পড়ে চরমে।
এদিকে, প্রবল বৃষ্টিতে শহরের কাঁচিঝুলি এলাকায় একটি রেইন ট্রি গাছ রাস্তার ওপর উপড়ে পড়ায় বন্ধ হয়ে যায় ময়মনসিংহ-টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ-জামালপুর মহাসড়কের যান চলাচল।mymensingh town natun bazar  pic -02
ময়মনসিংহ রেলস্টেশনের সুপারিনটেনডেন্ট আবু তাহের জানান, ভারী বর্ষণের শনিবার সকালে শহরের সানকিপাড়া রেলক্রসিং, নতুন বাজার রেলক্রসিংসহ বিভিন্ন পয়েন্টে রেললাইনের ওপর ১/২ফুট পানি উঠে যায়। তিনি বলেন, রেলপথে পানি উঠে যাওয়ায় শনিবার দুপুরে দেওয়ানগঞ্জগামী তিস-া এক্সপ্রেস ট্রেন প্রায় আধঘন্টা আটকে থাকে। পরে আধঘন্টা পর ট্রেনটি দেওয়ানগঞ্জের উদ্দেশে ছেড়ে যায়। তিনি জানান, রেলপথে পানি থাকায় স্বাভাবিক গতিতে ট্রেন চলাচল করতে পারছে না। ফলে ধীর গতিতে চলাচল করছে ট্রেন।

কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম জানান, শহরের কাঁচিঝুলি এলাকায় একটি রেইন ট্রি গাছ ঝড় বৃস্টিতে সড়কের ওপরে পড়ে যাওয়ায় সেখানে যান চলাচল বন্ধ থাকে। রাস্তার ওপর উপড়ে পড়া গাছটি কাটা হলে ৯ ঘন্টা পর সড়কটি সচল হয়।
এদিকে শহরের স্টেশন রোড, গাঙ্গিনারপাড়, রামবাবু রোড, নতুন বাজার, সাহেব আলী রোড, জেলা স্কুল রোড, কলেজ রোড, বাউন্ডারী রোড, দুর্গাবাড়ী রোড, মেছুয়া বাজার, নওমহল, ডেঙ্গুবেপারী রোড, ব্রাক্ষপল্লী রোড, বাঘমাড়া রোড, কাচিঝুলি রোড, আকুয়া চৌরঙ্গীর মোড় শহরের শতকরা ৭০ ভাগ এলাকা জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এতে কোথায় ২ ফুট কোথাও ৩/৪ ফুট পানির নীচ ডুবে যায়। শহরের অধিকাংশ বাসাবাড়িতে পানি ঢুকে পড়ে। শহরের প্রাণ কেন্দ্র স্টেশন রোড, গাঙ্গিনারপাড় নতুন বাজার সিকে, ঘোষ রোড, বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, দোকানপাটে পানি ঢুকে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়।10984147_10204189986661164_7086027276494162610_n
রিক্সাওয়ালা আবদুল করিম (৫০) জানান, আমার জীবনে কখনো এত বৃস্টি দেখিনি। শহরের অনেক সড়কেই রিক্সা চালানো সম্ভব হয়নি। অধিকাংশ সড়কে ব্যাটারী অটো রিক্সা চালানো বন্ধ হয়ে যায়। ফলে স্কুলগামী পরীক্ষাথীরা নিদিষ্ট সময়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌছাতে পারেনি। কোন কোন স্কুলে আজকের পরীক্ষা স’গিত করা হয়েছে। সব মিলিয়ে শনিবার সকাল থেকে ৮-৯ ঘন্টা সময় শহর জীবন অচল হয়ে পড়ে।
আড়াইশত বছরের পুরনো ময়মনসিংহ পৌরসভা, এই পৌরসভায় অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস’ার ফলে অল্প বৃষ্টিতে শহরের প্রাণ কেন্দ্র গাঙ্গিনার পাড়, রামবাবু সড়ক, দুর্গাবাড়ী সড়ক, নতুন বাজার, সাহেব আলী রোড, জিলা স্কুল রোড,স্টেশন রোড ও সি,কে ঘোষ রোড, আমলা পাড়া, সেহড়া মুন্সীবাড়ি, পুরোহিত পাড়া, ব্রা‏ম্মপল্লী রোড বাউন্ডারী রোড, কাচিঝুলী, নও মহল,গুলকী বাড়ি সানকি পাড়া এলাকার নিন্মাঞ্চলে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়, এতে স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীরা চরম দূর্ভোগে পড়ে।mymensingh town -pic   Flood  03
শহরের পানি নিষ্কাসনে খাল দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার ও ড্রেন গুলো নিয়মিত পরিস্কার না করায় এবং অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থার কারণে একটু বৃষ্টি হলেই শহরের অলিগলি তলিয়ে যায়।
শহরের জলাবদ্ধতা সর্ম্পকে জানতে ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র ইকরামুল হক টিটু বলেন নাগরিক সচেতনতার অভাবে ড্রেন গুলোতে ময়লা আর্বজনা ফেলে ভরাট করার ফলে পানি নিষ্কাসনে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে।
শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনে পৌর কতৃপক্ষ দ্রুত ব্যবস’া গ্রহন করবে এটাই পৌরবাসীর প্রত্যাশা।

সর্বশেষ আপডেটঃ ১২:৫০ পূর্বাহ্ণ | জুন ১৪, ২০১৫