| রাত ১১:০৭ - বুধবার - ১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১১ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

মুক্তাগাছায় জমি নিয়ে সন্ত্রাসীদের তাণ্ডব ঃ ফলজ বাগান ধ্বংস, দোকান ভাংচুর ও লুটপাট

 
মুক্তাগাছা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি: ১৩ জুন ২০১৫, শনিবার,

মুক্তাগাছার সোনাপুর গ্রামের জমি সংক্রান- বিরোধের জের ধরে দোকান ঘরে হামলা, ভাংচুর, লুটপাট ও ২৫ শতাংশ জমির উপর বিভিন্ন প্রজাতির ফলজ বাগান ধ্বংস করেছে প্রতিপক্ষ। এই ধ্বংসযজ্ঞের নেতৃত্ব দেন স্থানীয় একটি রাজনৈতিক দলের প্রভাবশালী নেতা। জানা যায়, সোনাপুর গ্রামে ইসমাইল হোসেনের পুত্র জবেদ আলীর সাথে একই গ্রামের তাহের আলী গংদের সাথে সোনাপুর মৌজার ১৬ শতাংশ জমি নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়। মূলত জমির সিএস ও আর ও আর ও পৈত্রিক সূত্রমতে মালিক জবেদ আলী গংরা। ১৯৮৫ সালে ভূমি জরিপের সময় ভুল বশতঃ জবেদ আলী গংদের সম্পত্তি কিছু অংশ তাহের গংদের নামে বিআরএস রেকর্ড হয়। পরবর্তীতে রেকর্ড সংশোধনের জন্য ময়মনসিংহ বিজ্ঞ ল্যাণ্ড ট্রাইব্যুনালে জবেদ আলী গংরা মামলা করে, যার মামলা নং- ২৫৭৪/২০১৩ যাহা বিচারাধীন। এদিকে আদালতে বিচারাধীন মামলা থাকা অবস’ায় গত শুক্রবার বিকাল ৪টায় প্রতিপক্ষ তাহের আলী ২৫/৩০ জনের একটি ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রসহ জনমনে ভয়ভীতি সৃষ্টি করে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ ও এলাকার ত্রাস সৃষ্টি করে জবেদ আলী গংদের দখলীয় বিভিন্ন প্রজাতির ফলজ বাগানে প্রবেশ করে বিনা বিচারে আম, লিচু, কলাসহ বিভিন্ন প্রজাতির উন্নত মানের ফলজ বাগান কর্তন করে ধ্বংস করে। সেই সাথে বাগান সংলগ্ন রাস-ার পাশে কাপড়ের দোকান ভেঙ্গে দোকানের সমুদয় মালামাল সেলাই মেশিন ও নগদ টাকাসহ সবকিছু লুট করে নিয়ে যায়। বিষয়টি এলাকায় সাধারণ মানুষের মনে দারুণ ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এ ব্যাপারে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হচ্ছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:২৪ অপরাহ্ণ | জুন ১৩, ২০১৫