| রাত ১০:৫৯ - শনিবার - ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৮ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে— ত্রিশালে ৮ মাস পর গুম হওয়া স্বামী ও তার স্ত্রী আটক

ত্রিশাল ব্যুরো অফিস,১৩ জুন ২০১৫, শনিবার,
ময়মনসিংহের ত্রিশালে স্বামীকে গুম ও হত্যার অভিযোগে স্ত্রীর দায়ের করা মামলার ৮ মাস পর গুম হওয়া মোমেনুল ও তার স্ত্রী দেলোয়ারা বেগমকে আটক করেছে ত্রিশাল থানা পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার ত্রিশাল উপজেলার চেলেরঘাট গ্রাম থেকে তাদের আটক করে থানা পুলিশ।

ত্রিশাল থানা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায়, উপজেলার সদর ইউনিয়নের চেলেরঘাট এলাকার এবেদ আলীর ছেলে মোমেনুলের সাথে একই উপজেলার সাখুয়া ইউনিয়নের আনিছুজ্জামান খোকন, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল ও ইলিয়াস আলীর সাথে জমি নিয়ে দীর্ঘ দিন যাবত বিরোধ চলছিল। জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে ৮ মাস আগে মোমেনুলকে অন্যত্র সরিয়ে তার স্ত্রী দেলোয়ারা বেগম উপরোক্তদের সহ জমির বর্গাদার সুরম্নজ আলীর নামে গুম ও হত্যার অভিযোগে ত্রিশাল থানায় একটি মামলা দায়ের করে।

গত বৃহস্পতিবার (১০ জুন) মোমেনুলকে নিজ এলাকায় দেখা গেলে গ্রামের লোকজন থানা পুলিশকে খবর দেয়। এ সময় পুলিশ মোমেনুল ও তার স্ত্রীকে আটক করে। অভিযুক্ত আনিছুজ্জামান খোকন জানান, পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত জমি দীর্ঘদিন ধরে মোমেনুল বর্গাদার হিসেবে চাষ করে আসছিল কিন্ত তাকে জমি বর্গা না দেওয়ায় এ নাটকটি সাজানো হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ত্রিশাল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এস.আই) নুরম্নজ্জামান জানান, জমি দখলের জের হিসেবে প্রতিপক্ষকে ফাঁসানোর জন্যই হত্যা ও গুমের অভিযোগ করেছিল। নিজ বাড়ীতে তাকে জীবিত পাওয়ায় আমরা তাকে আটক করেছি।

ত্রিশাল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরম্নজ্জামান জানান, জমি সংক্রানত্ম বিরোধের জের ধরেই এ ঘটনার সূত্রপাত হয়।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:৫১ অপরাহ্ণ | জুন ১৩, ২০১৫