| রাত ১০:৫৯ - বুধবার - ১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১১ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

আসামে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

অনলাইন ডেস্ক, ১২ জুন ২০১৫, শুক্রবার,

 ভারতের আসাম রাজ্যে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। রাজ্যে ব্যাপক বৃষ্টিপাত ও পার্শ্ববর্তী অরুণাচল প্রদেশ রাজ্যে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বেড়ে এ বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। ভারতের গুয়াহাটিতে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি সতর্কসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ার পর কেন্দ্রীয় পানি কমিশন (সিডব্লিউসি) সতর্কতা জারি করেছে।

সিডব্লিউসি’র তথ্যানুযায়ী, গুয়াহাটিতে ব্রহ্মপুত্র নদীর পানি সতর্ক সীমার কমপক্ষে ২০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এখানে বিপদসীমা হল ৪৯ দশমিক ৬৮ মিটার।
সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, আসামের ১৫ জেলায় বন্যায় ৩ লাখ ২৩ হাজার লোক পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। এর পাশাপাশি ব্যাপক বৃষ্টিপাত ও বিভিন্ন স্থানে ভাঙন পরিস্থিতির আরো অবনতি ঘটাচ্ছে।
জোরহাট ও ধুবরিতে ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে বইছে। বন্যায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। সড়ক যোগাযোগ মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে এবং বেশিরভাগ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও হাসপাতাল জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। গতরাতে প্রবল বর্ষণে গুয়াহাটির বিভিন্ন এলাকায় পানি জমে গেছে। কাজিরাঙ্গা ন্যাশনাল পার্ক ও পবিতোরা বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের নিম্নাঞ্চলও প্লাবিত হয়েছে এবং বন্যপ্রাণীরা উঁচু ও নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিচ্ছে।
এদিকে অরুণাচল প্রদেশের আট জেলায় সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। বিভিন্ন এলাকায় খাদ্যশস্যসহ প্রয়োজনীয় সামগ্রীর ঘাটতি দেখা দিয়েছে। ভূমিধসে বেশিরভাগ সীমান্ত শহর এবং লংডিং, তিরাপ, চাংলং, আঞ্জ, দিবাং, ভ্যালি, আপার সিয়াং, ওয়েস্ট সিয়াং ও আপার সুবনসিরি জেলার সদরদপ্তরের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। নয়াদিল্লী, ১২ জুন ২০১৫ (বাসস)

সর্বশেষ আপডেটঃ ১০:১৭ অপরাহ্ণ | জুন ১২, ২০১৫