| দুপুর ১:০৬ - শনিবার - ১৩ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

শচীন-দ্রাবিড়কে আম্পায়ারিংয়ে আহ্বান টফেলের

অন লাইন ডেস্ক,৩১ মে ২০১৫, রবিবার:

ক্রিকেট মাঠে সায়মন টফেলের ম্যাচ পরিচালনার দক্ষতা সর্বজনবিদিত। পাঁচবার আইসিসির বর্ষসেরা আম্পায়ারের পুরস্কার পেয়েছেন অস্ট্রেলিয়ান এ ভদ্রলোক। তবে তিনি এবার ভারতের কিংবদন্তিসম দুই ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকার ও রাহুল দ্রাবিড়কে মাঠে আম্পায়ারের ভূমিকায় দেখতে চান। ব্যাপারটি এসেছে ভারতীয় খেলোয়াড়দের তাদের দেশের আম্পায়ারদের সম্মান না দেয়ার কারণে। মাঠে ভারতীয় খেলোয়াড়রা নাকি তাদের দেশের আম্পায়ারদের খুব একটা দাম দেন না। তবে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের আম্পায়ারদের তারা বেশ সমীহ করেন বলে জানালেন তিনি। ভারতীয় ক্রিকেটারদের কাছ থেকে তিনি এমনটা আশা করেন না। ভারতীয় আম্পায়াররা ভুল সিদ্ধান্ত দেন বলে ভারতীয় ক্রিকেটারদের মনোভাব। কিন্তু আম্পায়ারের দায়িত্ব পালন করা অনেক কঠিন কাজ। এটা করতে গেলে সামান্য ভুলভ্রান্তি হয় বলে জানালেন টফেল। আর এক্ষেত্রে এটা পরীক্ষা করার জন্য ভারতের অবসরপ্রাপ্ত খেলোয়াড়দের আম্পায়ারিংয়ে আসার অনুরোধ জানালেন তিনি। ৪৪ বছর বয়সী এ অস্ট্রেলিয়ান বলেন, ‘ভারতীয় খেলোয়াড়রা তাদের দেশের আম্পায়ারদের খুব একটা মূল্যায়ন করেন না। কিন্তু এটা ঠিক নয়। ম্যাচ পরিচালনা করতে গেলে একটু-আধটু ভুলভ্রান্তি হয়ই। এটা অনেক কঠিন কাজ। যদি বিশ্বাস না হয় তাহলে ভারতীয় খেলোয়াড়দের অবসরের পর এ পেশায় আসতে অনুরোধ করছি। এমনকি শচীন টেন্ডুলকার ও রাহুল দ্রাবিড়কে একটি সাদা কোটে মাঠে দেখলে আমি অনেক খুশি হব।’
ভারতীয় আম্পায়াররা এখন বেশ উন্নতি করছে উল্লেখ করে টফেল বলেন, ‘ভারতীয় প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল) দ্বিতীয় আসরে (২০০৯) আমি আম্পায়ার হয়ে আসি। সেবার প্লে-অফের একটি ম্যাচেও ভারতের কোন আম্পায়ার ছিলেন না। কিন্তু এখন প্লে-অফসহ সবক্ষেত্রে তারা ম্যাচ পরিচালনা করছেন। এমনকি বিশ্বকাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও তারা সুনামের সঙ্গে ম্যাচ পরিচালনা করেছেন। তারা অনেক উন্নতি করছেন।’

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:০৪ অপরাহ্ণ | মে ৩১, ২০১৫