| সকাল ৮:০৬ - বৃহস্পতিবার - ১৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ৩রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৯শে মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

সালাহউদ্দিন আহমেদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর

 অনলাইন ডেস্ক, ২৯ মে, শুক্রবার,
ভারতের শিলংয়ের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছে দেশটির আদালত। আদালত পুলিশের পরিদর্শক (কোর্ট ইন্সপেক্টর) প্রথমে জামিন মঞ্জুর হয়েছে বলে জানালেও ঘণ্টাখানেক পর তিনি জানান, জামিন হয়নি। বিকালে শিলংয়ের জেলা ও দায়রা জজ আদালতে সালাহউদ্দিনের পক্ষে করা জামিন আবেদন শুনানি হয়। শিলংয়ে স্থানীয় পত্রিকার এক সাংবাদিক জানিয়েছেন, বাংলাদেশের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর (এনসিবি) দিল্লির এনসিবির কাছে অনুরোধ জানায়, সালাহউদ্দিনের বিরুদ্ধে বাংলাদেশে মামলা রয়েছে। তাকে জামিন দিলে তিনি পালিয়ে যেতে পারেন। পরে দিল্লি থেকে তা মেঘালয় পুলিশকে জানানো হয়। মামলার শুনানি চলাকালেই বিষয়টি হয় বলে সুব্রত জানান। এছাড়া আদালত লিখিত আদেশে বলেছেন, সালাহউদ্দিন ভারতে অনুপ্রবেশই করেছেন। এটিই আদালতের কাছে বিশ্বাসযোগ্য হয়েছে। এর পাশাপাশি পুলিশ এখনও আদালতে সালাহউদ্দিনের ব্যাপারে প্রতিবেদন দাখিল করেনি। এসব কারণে বিএনপি নেতার জামিন নামঞ্জুর করা হয় বলে কোর্ট ইন্সপেক্টর প্রসাদ জানান। গত ২২শে মে উন্নত চিকিৎসার জন্য সালাহউদ্দিন আহমেদের জামিন চেয়ে স্থানীয় জেলা আদালতে আবেদন করেন তার স্ত্রী হাসিনা আহমেদ। এরপর ২৭শে মে সালাহ উদ্দিন আহমেদকে ১৪ দিনের হেফাজতে  নেন শিলংয়ের জেলা ও দায়রা জজ আদালত। আদালতের বিচারক শুনানি শেষে তাকে রুটিন চেকআপ শেষে ১৪ দিনের বিচারিক হেফাজতে নেয়ার আদেশ দেন। এরপর সালাহউদ্দিনকে  নেগ্রিমস হাসপাতালে নেয়া হয়। বুকে ব্যথা থাকায় তাকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে বিশেষ তত্ত্বাবধানে রাখা হয়। শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় তাকে হাসপাতালে পর্যবেক্ষণে রাখার পক্ষে মত দিয়েছেন চিকিৎসকরা।  নিখোঁজের দীর্ঘ ৬২ দিন পর গত ১১ই মে ভারতের শিলংয়ে হাত-বাধা অবস্থায় ছেড়ে দেয়া হয় সালাহউদ্দিন আহমেদকে। পরে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে তাকে সেখানকার পুলিশ আটক করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

 

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:৫৪ অপরাহ্ণ | মে ২৯, ২০১৫