| রাত ৪:১৯ - শনিবার - ৬ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২২শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

রাজশাহীতে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের গোলাগুলিতে ছাত্রলীগকর্মী নিহত

অন লাইন ডেস্ক, ২৯ মে, শুক্রবার,

 রাজশাহী নগরীর রানীবাজার এলাকায় বৃহস্পতিবার রাতে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের গোলাগুলিতে জীবন শেখ (২২) নামের এক ছাত্রলীগকর্মী নিহত হয়েছেন। এতে কমপক্ষে পাঁচজন আহত হয়েছেন। নিহত জীবন শেখ নগরীর রাজারহাতা এলাকার হোসেন শেখের ছেলে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রাজশাহী সিটি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি রবিনের সঙ্গে মহানগর ছাত্রলীগের সদস্য তুহিনের বন্ধুত্ব ছিল। বৃহস্পতিবার বিকেলে রবিন মোবাইলে ফোন করে সিটি কলেজের সামনে তুহিনকে আসতে বলেন।  সেখানে যাওয়ার পরপরই রবিন তাঁকে লোহার পাইপ দিয়ে মারধর করেন। এ ঘটনায় বোয়ালিয়া থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি তুহিনের বাবা আতিকুর রহমান কালু বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বোয়ালিয়া মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে রবিন গ্রুপের একদল নেতাকর্মী রানীবাজার মোড়ে গিয়ে একটি ক্লাবে হামলা চালায়। এ সময় সেখানে আতিকুর রহমান কালুর বড় ছেলে তুষার ক্যারাম খেলছিলেন। হামলাকারীরা তুষারসহ বেশ কয়েকজনকে মারধর করে এবং তুষারের মোটরসাইকেল ও ক্লাবঘর ভাঙচুর করে। খবর পেয়ে আতিকুর রহমান কালুর লোকজন তাদের ধাওয়া দেয়। এ সময় দু’পক্ষের মধ্যে ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও গুলি বর্ষণের ঘটনা ঘটে। এতে গুলিবিদ্ধ হন রবিন গ্রুপের ছাত্রলীগকর্মী জীবন শেখ। তাঁকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। বোয়ালিয়া থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি আতিকুর রহমান কালু জানান, তাঁর ছেলে তুহিনকে বিকেলে মারধর করে রবিন। এ ঘটনায় গণ্ডগোল এড়াতে তিনি থানায় এজাহার দেন। এর পরও তারা প্রস্তুতি নিয়ে তাঁর এলাকায় এসে আবারো হামলা করে। ছাত্রলীগ নেতা তুহিন জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে রবিন তাঁকে ‌সিটি কলেজ এলাকায় ডেকে নিয়ে কোনো কারণ ছাড়াই মারধর করেছে। ঘটনার পর থেকে ছাত্রলীগ নেতা রবিনের মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তাঁর মন্তব্য জানা যায়নি।

বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুর রহমান জানান, ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে সংঘর্ষে এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পর রানীবাজার এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:৪৮ অপরাহ্ণ | মে ২৯, ২০১৫