| রাত ৪:৪৫ - রবিবার - ২০শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ২৫শে রবিউস সানি, ১৪৪৪ হিজরি

ঢাকায় গারো কিশোরী ধর্ষনের প্রতিবাদে হালুয়াঘাটে বিক্ষোভ ও স্মারকলিপি প্রদান

 

আনছারুল হক রাসেল ঃ ২৮ মে ২০১৫, বৃহস্পতিবার:
ঢাকায় আদিবাসী গারো মেয়ে মাইক্রোবাসে ধর্ষণের বিচার সহ সকল ধর্ষণের বিচারের দাবিতে হালুয়াঘাটে বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস) এর উদ্যোগে এক বিক্ষোভ মিছিল ও প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। বিক্ষোভ শেষে আলোচনা সভায় উপসি’ত গারো নেতৃবৃন্দ বলেন, আমরা হালুয়াঘাট, ময়মনসিংহের আদিবাসী ছাত্র- জনতা। ১৯৭১ সনের মহান মুক্তিযুদ্ধে আদিবাসীদের গৌরবোজ্জল অংশগ্রহণ এবং বীর শহীদদের রক্তে রঞ্জিত ইতিহাস এ দেশের ইতিহাসে চিরদিন লেখা থাকবে। অনেক রক্তের বিনিময়ে আমরা এ দেশকে স্বাধীন করেছি, এই স্বাধীনতায় গারো বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অবদানের কথা অনস্বীকার্য। গারো আদিবাসীদের বাদ দিয়ে দেশ ও জাতির উন্নয়ন সম্ভব নয়।
স্মরণাতীতকাল থেকেই বৃহত্তর ময়মনসিংহ জেলায় গারো আদিবাসীদের বসবাস, প্রকৃতি তথা নদ-নদী, বন, পাহাড় তাদের ঐতিহ্যের বাহক। কিন’ যুগযুগ ধরে কিছু দুস্কৃতিকারী এ দেশের গারো আদিবাসী ও বাঙ্গালিদের মিলেমিশে থাকার প্রতিবন্ধকতায় এবং সামপ্রদায়িক দাঙ্গা বাধিয়ে নিজ হীন কার্য উদ্ধারের পায়তারা করে চলছে অনেক আগে থেকেই ।আমাদের মাঝে শানি- সম্পৃতি বিনষ্ট করার জন্য এরা প্রতিনিয়তই উত পেতে থাকে। এরা সমাজ ও জাতীয় ঐক্যতার মূল বাধা হয়ে দাড়িয়ে আছে, এদের জন্য আজ দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে। এরা এ দেশের প্রতারক, দালাল, মির্জাফর, আলবদর, আলসাম, রাজাকারের ভূমিকায় আমাদের বর্বরোচিত আদিবাসী কিশোরীরা বিভিন্ন স্থানে গণধর্ষনের শিকার হয়েছে। ইহা মানবিকতা বোধ সম্পন্ন মানুষের কাছে কখনই সনে-াষ্টির হতে পারেনা। আমরা এই বর্বরোচিত ধর্ষণ ও ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানাই। সেই সাথে এই বর্বরোচিত সকল ধর্ষনের সুষ্ঠুতদনে-র মাধ্যমে ধর্ষণকারীদের দৃষ্টান-মূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি, অন্যত্থায় কঠোর কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দাবি আদায়ের জন্য আমরা সংকল্পবদ্ধ।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৬:৪৬ অপরাহ্ণ | মে ২৮, ২০১৫