| ভোর ৫:৫৪ - সোমবার - ২৮শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৩রা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

অভিবাসীদের উদ্ধারে ইন্দোনেশিয়ার অভিযান শুরু

অনলাইন ডেস্ক ,২৪ মে ২০১৫, রবিবার:

সমুদ্রে ভাসমান ৭,০০০ বাংলাদেশী ও মিয়ানমারের রোহিঙ্গা অভিবাসীদের উদ্ধারে অনুসন্ধান ও উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে ইন্দোনেশিয়া। নৌবাহিনীর ৪টি জাহাজ, দুটি বড় বোট ও একটি টহল বিমান উদ্ধার অভিযানে অংশ নিয়েছে। ইন্দোনেশিয়ার সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র  ফুয়াদ বাসিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় অনুসন্ধান অভিযান শুরু হলেও, কার্যত আজ থেকেই পূর্ণ উদ্যমে চলবে উদ্ধার তৎপরতা। ওই মুখপাত্র বলেছেন, আমরা সরকারিভাবে প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদোর কাছ থেকে অনুসন্ধান ও উদ্ধার অভিযান পরিচালনার নির্দেশ পেয়েছি। ইন্দোনেশিয়ার জলসীমা বা আন্তর্জাতিক সমুদ্রে সমানভাবে চলবে এ অভিযান। তিনি বলেন, আমরা অভিবাসীদের উদ্ধার করে তাদের তীরে নিয়ে যাবো। গত শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত অভিবাসীদের বহনকারী নতুন কোন বোট চোখে পড়েনি বলে জানান ওই সেনা মুখপাত্র। বাংলাদেশী ও রোহিঙ্গাদের তীরে ভিড়তে না দিয়ে ঠেলে গভীর সমুদ্রে পাঠিয়ে দেয়ার নির্মম নীতি থেকে আগেই সরে এসেছে দেশটি। এর আগে গুরুত্বপূর্ণ এক সম্মেলনে মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া ও থাইল্যান্ড অভিবাসীদের উদ্ধার ও সাময়িক আশ্রয় দিতে সম্মত হয়। গত বুধবার মালয়েশিয়া সরকারের সঙ্গে ইন্দোনেশিয়া তাদের অবস্থান থেকে কার্যত সরে আসে। উদ্ধারকৃত অভিবাসীদের পুনর্বাসন ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতায় তাদের দেশে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে, এমন শর্তে দেশ দুটি ৭,০০০ অভিবাসীকে সাময়িক আশ্রয় প্রদানের ঘোষণা দেয়। ইন্দোনেশিয়ার আচেহ প্রদেশে নির্দেশ অমান্য করে জেলেরা শত শত রোহিঙ্গা মুসলমান ও বাংলাদেশীদের উদ্ধার করলেও, জাকার্তা ছিল নীরব।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৪:৪০ অপরাহ্ণ | মে ২৪, ২০১৫