| বিকাল ৩:১২ - শনিবার - ২৬শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১লা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

আজ মুম্বই-চেন্নাই শিরোপা লড়াই

অনলাইন ডেস্ক ,২৪ মে ২০১৫, রবিবার:

ভারতীয় প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল) অষ্টম আসরে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দুই দলই শেষ পর্যন্ত ফাইনালে উঠল। কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে আজ শিরোপার লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে মুম্বই ইন্ডিয়ানস ও চেন্নাই সুপার কিংস। গ্রুপ পর্ব শেষে এই দুটি দলই পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে ছিল। ১৪ ম্যাচে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে চেন্নাই ও ১৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে ছিল মুম্বই। ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে প্রথম কোয়ালিফাইয়ার ম্যাচে শীর্ষ দল দুটি মুখোমুখি হয়। ওই ম্যাচে চেন্নাইকে হারিয়ে সরাসরি ফাইনালের টিকিট কাটে মুম্বই। কিন্তু চেন্নাইয়ের ফাইনালে ওঠার সুযোগ তখনও থেকে যায়। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু ও রাজস্থান রয়্যালসের মধ্যের এলিমিনেটর ম্যাচে জয়ী দলের বিপক্ষে দ্বিতীয় কোয়ালিফাইয়ার ম্যাচে জিতে ফাইনালে ওঠার সুযোগ থাকে তাদের সামনে। আর মহেন্দ্র সিং ধোনির দল সেই সুযোগটাই কাজে লাগিয়ে ফাইনালে উঠল। শুক্রবার দ্বিতীয় কোয়ালিফাইয়ার শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে মাত্র ১ বল হাতে রেখে ব্যাঙ্গালুরুকে ৩ উইকেটে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে চেন্নাই। আইপিএলে সবচেয়ে সফল দল চেন্নাই। তারা আট আসরে সর্বোচ্চ ষষ্ঠবার ফাইনালে খেলছে। কলকাতা নাইট রাইডার্সের সঙ্গে যৌথভাবে সর্বোচ্চ দুইবারের শিরোপা জয়ীও তারা। এর আগে দুইবার ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছে মুম্বই ও চেন্নাই। সফলতা দুই দলের সমান। ২০১০ সালে মুম্বইকে হারিয়ে চেন্নাই। আর ২০১৩ সালে চেন্নাইকে হারিয়ে মুম্বই শিরোপা জেতে। এবার তৃতীয়বারের মতো ফাইনালে মুখোমুখিতে দুই দলের এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ। চেন্নাই শিরোপা জিতলে সবার ওপরে যাবে তারা। অন্যদিকে মুম্বই জিতলে দুইবার শিরোপা জেতার তালিকায় চেন্নাই ও কলকাতার সঙ্গে ভাগ বসাবে।
শুক্রবার দ্বিতীয় কোয়ালিফাইয়ার ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাটে গিয়ে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু সংগ্রহ করে ৮ উইকেটে ১৩৯ রান। জবাবে মাত্র এক বল হাতে রেখে জয় নিশ্চিত করে চেন্নাই।
ব্যাঙ্গালুরুকে অল্প রানে বেঁধে ফেলার নায়ক ছিলেন ভারতীয় পেসার অশিষ নেহরা। তিনি দলীয় পাঁচ ওভারের মধ্যেই ব্যাঙ্গালুরুর দুই ভয়ঙ্কর ব্যাটসম্যান অধিনায়ক বিরাট কোহলি (১২) ও এবি ডি ভিলিয়ার্সকে (১) ফেরত পাঠান। এতে দলের অন্য ব্যাটসম্যানরা তেমন জ্বলে উঠতে পারেনি। বিধ্বংসী হয়ে উঠতে পারেননি ক্রিস গেইলও। তবে শেষ পর্যন্ত তিনিই ৩ ছক্কা ও ২ চারে ৪৩ বলে সর্বোচ্চ ৪১ রান করেন। আর নেহরা নেন ২৮ রানে ৩ উইকেট। চেন্নাইয়ের পক্ষে দুর্দান্ত ব্যাট করেন অসি ব্যাটসম্যান মাইক হাসি। তিনি ২ ছক্কা ও ৩ চারে ৪৬ বলে সর্বোচ্চ ৫৬ রান করেন। এছাড়া অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি করেন ২৯ বলে ২৬ রান।

সর্বশেষ আপডেটঃ ১:৫৫ অপরাহ্ণ | মে ২৪, ২০১৫