| সকাল ৭:০১ - মঙ্গলবার - ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

তাপদাহে ভারতে ৩ দিনে ২০০ জনের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক , ২৩ মে ২০১৫, শনিবারঃ

প্রতিবেশী ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ ও তেলেঙ্গানা রাজ্যে গত তিন দিনে তীব্র তাপদাহে দুই শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে শুক্রবারই (২২ মে) মারা গেছে শতাধিক মানুষের। দুই রাজ্যের বেশিরভাগ অঞ্চলেই তাপমাত্রা এখন ৪৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। স্থানীয় আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, তাপমাত্রা অতীতের রেকর্ডকে ছাড়িয়ে যেতে পারে, বাড়তে পারে আশঙ্কাজনক হারে প্রাণহানিও।

আবহাওয়া অধিদফতর ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো শনিবার (২৩ মে) এ খবর জানিয়েছে।

সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিরা জানাচ্ছেন, তাপদাহে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর খবর আসছে তেলেঙ্গানার আদিলাবাদ, নিজামাবাদ, করিমনগর, মেদাক, বারঙ্গল, খাম্মাম, রঙ্গারেড্ডি, হায়দরাবাদ, নালগোনদা ও মাহবুবনগর জেলা থেকে, আর অন্ধ্র প্রদেশের পূর্ব গোড়াবাড়ি, পশ্চিম গোড়াবাড়ি, কৃষ্ণ, গুন্তুর, প্রকাশম, নেলোর, চিত্তর, কাদাপা ও কুর্নুল জেলা থেকে।

বুধ ও বৃহস্পতিবার (২০ ও ২১ মে) দুই রাজ্যে শতাধিক মানুষের মৃত্যুর খবর এলেও শুক্রবার মারা যায় আরও শতাধিক মানুষ।

তেলেঙ্গানার স্বাস্থ্য অধিদফতরের কর্মকর্তারা বলছেন, তাপদাহের কারণে বিভিন্ন এলাকা থেকে হিটস্ট্রোকসহ নানা রোগে আক্রান্ত লোকজনের ঢল নেমেছে রাজ্যের হাসপাতালগুলোতে। এদের চিকিৎসা সেবা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে চিকিৎসকদের।

একই ধরনের খবর আসছে অন্ধ্র প্রদেশ থেকেও। সে রাজ্যের কর্মকর্তারা বলছেন, প্রায় দুর্যোগ হয়ে ওঠা এ পরিস্থিতি মোকাবেলায় চিকিৎসকসহ সংশ্লিষ্টদের সর্বোচ্চ তৎপরতা দেখানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রত্যেকটি জেলায় প্রস্তুত রাখা হয়েছে জরুরি মেডিকেল টিমও।

দুই রাজ্যের কর্মকর্তারাই এই গরমে খুব প্রয়োজন না হলে বাইরে বের হতে নাগরিকদের পরামর্শ দিয়েছেন। যদি জরুরি প্রয়োজনে বের হওয়া লাগেও, তবে অন্তত তাপদাহ থেকে নিজেকে রক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম সঙ্গে রাখতে বলেছেন।

কেন্দ্রীয় আবহাওয়া অধিদফতরের (আইএমডি) কর্মকর্তারা জানান, দুই রাজ্যেই গড় তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রি ছাড়িয়ে গেছে। এই তাপমাত্রার কারণে তাপদাহ সতর্কতায় ‘তীব্র’ (সিভিয়ার) পর্যায় ঘোষণা করা হয়েছে।

আইএমডির কর্মকর্তারা আরও বলছেন, যে হারে তাপমাত্রা বাড়ছে তাতে এই অঞ্চলের তাপমাত্রা অতীতের রেকর্ড ছাড়িয়ে যেতে পারে। ২০০২ সালের ১১ মে তৎকালীন একীভূত অন্ধ্র প্রদেশ ও তেলেঙ্গানায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ৪৮.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস (বিজয়াবাদ)। সেই রেকর্ড তাপমাত্রায়ও এতো প্রাণহানি হয়নি।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, শুক্রবার পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের জরুরি পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার। এছাড়া, তাপদাহ থেকে নিজেদের বাঁচাতে জনগণকে সর্বোচ্চ সচেতনতা দেখানোর আহ্বানও জানানো হয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৪:২৭ অপরাহ্ণ | মে ২৩, ২০১৫