| বিকাল ৩:১৩ - রবিবার - ২৭শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ২রা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

গফরগাঁওয়ে উৎকোচের টাকা ফেরত

আজহারুল হক, গফরগাঁওঃ  ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে উৎকোচের বিনিময়ে এক শিক্ষকের চাকুরী স’ায়ী করণের চাঞ্চল্যকর ঘটনা নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে।
উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, টাঙ্গাব ইউনিয়নের বারইহাটি কমিউনিটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জাকিয়া সুলতানা মাতৃত্বজনিত কারনে ২০০৩ সালে তার ভাই আলমগীর কবির পরিবর্তিত শিক্ষক হিসেবে পাঠদান শুরু করেন। এ ঘটনায় ওই শিক্ষিকার বেতন বন্ধ হয়ে যায়। গত ২০১৩ সালে সরকারের নির্বাহী আদেশে রেজিষ্টার্ড ও কমিউনিটি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো জাতীয় করন হলে জাকিয়া সুলতানা চাকুরী ফিরে পেতে প্রধান শিক্ষকের মাধ্যমে যথাযথ কতৃপক্ষের কাছে আবেদন করেন। এ সময় তিনি ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শাহজাহান কবিরের মাধ্যমে উপজেলা শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারি মোমেনা খাতুন ১লাখ টাকা উৎকোচ প্রদান করেন। কিন’ টাকার বিনিময়ে কাজ সম্পন্ন না হওয়ায় জাকিয়া সুলতানা শিক্ষা কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলামের নিকট লিখিত অভিযোগ করেন। ঘটনার সত্যতা প্রমানিত হলে শিক্ষা কর্মকর্তা অভিযুক্ত মোমেনা খাতুনকে টাকা ফেরত দিতে নির্দেশ দেন।
জাকিয়া সুলতানা বলেন, চাহিদামত টাকা দিয়েও চাকুরী পাইনি। পরে শিক্ষা কর্মকর্তার নির্দেশে গত সোমবার উৎকোচের টাকা ফেরত পেয়েছি।
অফিস সহকারি মোমেনা খাতুনের কাছে ঘুষের টাকা ফেরত দেওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি কিছু বলতে চাননি।
উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, অফিস সহকারীর টাকা গ্রহনের বিষয়টি অনৈতিক। ঘটনার সত্যতা প্রমানিত হলে অভিযুক্ত মোমেনা খাতুনকে ভর্ৎসনা করে টাকা ফেরতের ব্যবস’া করা হয়।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:৩৩ অপরাহ্ণ | মে ১৯, ২০১৫