| রাত ৪:২৬ - মঙ্গলবার - ২২শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ২৭শে রবিউস সানি, ১৪৪৪ হিজরি

দুদকের ৫ জন উপ-পরিচালককে পরিচালক পদে পদোন্নতি

অন লাইন ডেস্ক | ১০  মে ২০১৫, রোববার,

নানা জল্পনা-কল্পনার পর দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) ৫ জন উপ-পরিচালককে পরিচালক পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ৭ জন সহকারী পরিচালক উপ-পরিচালক পদে পদোন্নতি পেয়েছেন। মোট ৪৭ জনকে পদোন্নতির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।
রোববার (১০ মে) দিনভর শ্বাসরুদ্ধকর কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। সভায় উপস্থিত থাকা একাধিক উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তা রাত আটটায় পদোন্নতির বিষয়ে বাংলানিউজকে নিশ্চিত করেন।
উপ-পরিচালক থেকে পরিচালক পদে যারা পদোন্নতি পেয়েছেন তারা হলেন, মোঃ আক্তার হোসেন, মোঃ আবু সাইদ, মীর মোঃ জয়নুল আবেদীন শিবলী, মোঃ সৈয়দ ইকবাল  হোসেন এবং শিরীন পারভীন।
৭ জন সহকারী পরিচালককে উপ-পরিচালক হিসেবে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে। তারা হলেন, মোঃ সামছুল আলম, শেখ আবদুস ছালাম, সৈয়দ আহমেদ, আবু বকর সিদ্দিক, রফিকুল ইসলাম (প্রশাসন) এবং রফিকুল ইসলাম (পটুয়াখালী)।
তবে পরিচালক হিসেবে বাছাইয়ের তালিকায় উপ-পরিচালক সৈয়দ মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, রাম মোহন নাথ ও হামিদুল হাসানের বিষয়ে বিভাগীয় পদোন্নতি কমিটিতে (ডিপিসি) আলোচনা হয়। কিন্তু শেষ মুহূর্তে তারা বাদ পড়ে যান বলে সূত্র জানায়।
এদিকে পদোন্নতির প্রশ্নে শুরু থেকেই জ্যেষ্ঠতা লঙ্ঘনের বিষয়ে তীব্র আপত্তি করে আসছেন ডিপিসি’র সভাপতি ও দুদকের সচিব মোঃ মাকসুদুল হাসান খান।
এ নিয়ে কমিশন সভায় দুদকের একজন কমিশনার এবং দুদক সচিব রীতিমতো মুখোমুখি অবস্থান নেন। দুদকের কমিশনার যোগ্যতা ও দক্ষতার ভিত্তিতে পদোন্নতির পক্ষে মত দেন। অন্যদিকে সচিব জ্যেষ্ঠতার বিষয়টি তুলে ধরেন। অবশেষে কমিশন তার ক্ষমতা বলে কর্মকর্তাদের যোগ্যতা ও দক্ষতার ভিত্তিতে পদোন্নতির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়।
পদোন্নতি পাওয়াদের তালিকা চূড়ান্ত হওয়ার পর সোমবার (১১ মে) প্রজ্ঞাপন আকারে প্রকাশের জন্য বিজি প্রেসে পাঠানো হবে বলে দুদক সূত্র জানায়।
সভা সূত্র জানায়, রোববারের সভায় উপ-সহকারী পরিচালক থেকে ২৩ জনকে সহকারী পরিচালক হিসেবে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে। সহকারী পরিদর্শক থেকে ১২ জনকে উপ-সহকারী পরিচালক হিসেবে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে।
দুদক চেয়ারম্যান মোঃ বদিউজ্জামানের সভাপতিত্বে রোববার বেলা ১১টা থেকে কমিশন সভা শুরু হয়। চলে সন্ধ্যা পর্যন্ত।
সভায় কমিশনার (তদন্ত) মোঃ সাহাবুদ্দিন চুপ্পু, কমিশনার (অনুসন্ধান) ড. নাসির উদ্দীন আহমেদ, ডিপিসি’র  সভাপতি দুদক সচিব মোঃ মাকসুদুল হাসান খান, মহাপরিচালক (অর্থ ও প্রশাসন) মোঃ সহিদুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।
দুদক সূত্র জানায়, এ পদোন্নতির মধ্য দিয়ে দুদক কর্মকর্তাদের মাঝে পদোন্নতি নিয়ে জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটলো। কে কে পদোন্নতি পাচ্ছেন এ নিয়ে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে চলছিল আলোচনা। রোববার দুদক জুড়েই আলোচনায় ছিলো পদোন্নতির বিষয়টি।
যারা পদোন্নতি পাননি তাদের মধ্যে তীব্র অসন্তোষ দেখা গেছে। তবে কমিশন সভায় উপস্থিত দুদকের উচ্চ পর্যায়ের এক কর্মকর্তা নাম না প্রকাশ করার শর্তে  বলেন, যোগ্যতা ও দক্ষতার ভিত্তিতে এসব পদোন্নতি হয়েছে। পদোন্নতির বিষয়ে কেবল জ্যেষ্ঠতা দিয়ে মূল্যায়ন করা হয়নি। যোগ্যতা ও দক্ষতার ভিত্তিতে পর্যায়ক্রমে পদোন্নতি দেওয়া হবে বলেও তিনি জানান।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:৪৭ অপরাহ্ণ | মে ১০, ২০১৫