| রাত ১০:২৭ - মঙ্গলবার - ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

গফরগাঁওয়ে ১৩২ কোটি টাকার বোরো ধান উৎপাদনের সম্ভাবনা ঃ দাম কম থাকায় হতাশ কৃষক

আজহারুল হক, গফরগাঁও ঃ
ময়মনসিংহের গফরগাওয়ে বৈশাখের শেষ ভাগে বোরো ধান কাটা ও মাড়াইয়ের ধূম পড়েছে। বোরো ধানের মৌ মৌ গন্ধ পেতে শুরু হলেও দাম খুবই কম থাকায় হতাশ হয়ে পড়েছেন কৃষকরা ।
উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১৫টি ইউনিয়নে ৫৩ হাজার ৩৭ একর জমিতে বোরো ধান চায় হয়েছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকতা সাইফুল ইসলাম জানান, চলতি মৌসুমে আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় বোরোর বাম্পার ফলন হয়েছে। আশা করছি উপজেলায় ২৬ লক্ষ ৫১ হাজার ৮শ ৫০ মণ ধান উৎপাদন হবে। যা বর্তমান বাজার মূল্যে ৫০০ টাকা দরে ১ শত ৩২ কোটি ৫৯ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা। তবে ধানের দাম কম থাকায় এবার উৎপাদন বেশী হলেও দুঃচিন-ায় পড়েছেন কৃষকরা । সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, উপজেলার ধানক্ষেতগুলোতে এখন দোল খাচ্ছে পাকা সোনারাঙা ধান।
উপজেলার প্রত্যন- গ্রামঞ্চলে বোরের বাম্পার ফলনে কৃষকদের মুখে প্রথমে হাসির ঝিলিক থাকলেও ধান বাজারে উঠাতেই সে হাসি মলিন হয়ে যায়। কৃষকরা জানান বর্তমানে বাজারে প্রতিমন নতুন ধান বিক্রি হচ্ছে ৪৭০ থেকে ৫০০ টাকা দরে। এ দাম অব্যাহত থাকলে বোরো আবাদের সময়ে করা ঋণ পরিশোধতো দূরের কথা নতুন করে আবার ঋণ করতে হবে।
জানা যায়, কৃষক পর্যায়ে গুটি ইউরিয়া প্রয়োগ সুষম সার ব্যবহারের জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়ায় কৃষকদের সংকট মোকাবেলা করতে সহজ হয়। সব প্রতিকূলতা কাটিয়ে কৃষকরা এখন সোনালী ফসল ঘরে তোললেও বাজার দর খুবই কম থাকায় দিশেহার হয়ে পড়েছেন কৃষকরা । কৃষক আনিছ উদ্দিন, রমজান আলী ও এনামুল হক জানান, প্রতি মণ ধান উৎপাদনে যে খরচ হয়েছে তা থেকে মনে অন-ত ২’শ টাকা কমে বিক্রি করতে হচ্ছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:১৫ অপরাহ্ণ | মে ১০, ২০১৫