| সন্ধ্যা ৭:৩৮ - শুক্রবার - ২৫শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৩০শে রবিউস সানি, ১৪৪৪ হিজরি

ফুলবাড়ীয়ায় আতংক সৃষ্টি করে বাড়ীঘরে আগুনঃ রক্ষা পাইনি জীবন্ত পশু

 

ফুলবাড়ীয়া ব্যুরো : ফুলবাড়ীয়া উপজেলার ৯নং এনায়েতপুর ইউনিয়নের কাহালগাও দোলমা গ্রামে ককটেল ফাটিয়ে আতংক সৃষ্টি করে হত দরিদ্র লাকী আক্তারের বাড়ী ঘরে আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দিয়েছে মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসীরা। এসময় ইটের আঘাতে একটি গাভী, স্কুল ছাত্রী নেহারসহ ৪জন গুরম্নতর ৭/৮জন আহত হয়েছে। গুরম্নতর আহতদের সখীপুর উপজেলা স্বাস’্য কমপেস্নক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৫মে) রাত ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
স’ানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাত সাড়ে ১২টার দিকে ফুলবাড়ীয়া থানা পুলিশ দোলমা গ্রাম থেকে নায়েব আলী ও নজরম্নলকে গ্রেফতার করার পর পরই মৃত আলতাব আলীর পুত্র মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে ৩০/৩৫জনের একটি সংঘবদ্ধ দল লাকীর বাড়ীতে হামলা চালিয়ে জ্বালিয়ে দেয়। বিকট আকারের ২/৩টি শব্দে আতংক ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে। চক্রটি বিভিন্ন দিকে থেকে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করায় পাশ্ববর্তী বাড়ীর মৃত আ. মতিন পুত্র হাসেম, মৃত মতিনের স্ত্রী রহিমা খাতুন, ইয়াসীন আলীর পুত্র রিয়াজুল, নায়েব আলীর পুত্র মুঞ্জু গুরম্নতর আহত হলে তাদের সখীপুর উপজেলা স্বাস’্য কমপেস্নক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাতভর চলে তাদের এ নারকীয় হত্যাযজ্ঞ।
প্রত্যক্ষদর্শী মৃত মুনত্মাজ আলী পুত্র আবুল হোসেন জানান, সাপমারা বাজার থেকে বাড়ীতে এসে ভাত খাওয়ার সময় শুনি বিকট শব্দ। আতংকে বাড়ীর বাহিরে এসে দেখতে পাই আগুনের লেলিহান।
আ. রহমান, আলতাফ হোসেন, ইসমাইল হোসেন জানান ১০/১২বছর আগে মিজান নিজের বাড়ীতে নিজেই আগুন দিয়ে কয়েকজন জেল হাজত খাটিয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:২৩ অপরাহ্ণ | মে ০৫, ২০১৫