| রাত ১০:৫৬ - বুধবার - ১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১১ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

মুক্তাগাছায় নারীর শ্লীততাহানী,সন্ত্রাসী হামলায় আহত ৩

সিরাজুল হক,মুক্তাগাছা প্রতিনিধি: মুক্তাগাছার শাল বন অধ্যুসিত নালিখালী গ্রামে জমির ধান কেটে নিতে বাঁধা দেয়ায় এক আদিবাসী গারো পরিবারের ওপর সশস্ত্র হামলা চালিয়েছে সংঘব্ধ সন্ত্রাসীরা। এসময় একই পরিবারের তিন জনকে কুপিয়ে আহত ও এক আদিবাসী নারীকে শ্লীলতাহানীর ঘটনা ঘটেছে। এ নিয়ে থানায় মামলা হয়েছে।
পুলিশ, এলাকাবাসী ও হামলার শিকার পরিবার সূত্রে জানাগেছে উপজেলার গারো আদিবাসী এলাকা নালিখালী গ্রামের নিপেন্দ্র রুগার স্ত্রী কাঞ্চন রোজারিওর সাবকাওলা মূলে ক্রয়কৃত জমির পাকা ধান গত বৃহস্পতিবার পাশ্ববর্তী গ্রামের সাজেদুল(৪৩), ভুলু (৬০), নজরুল, নূরে(৫০),মিলন(৪৫)সহ ১৩/১৪ জনের একটি সন্ত্রাসী চক্র জোরপূর্বক কেটে নেয়ার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে কাঞ্চন রোজারিওর পরিবারের লোকজন তাতে বাঁধা দেয়। এতে সন্ত্রাসীরা সংঘবদ্ধ হয়ে দা লাঠি সোটা নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়। সন্ত্রাসীদের এ্যালোপাথারি দায়ের কুপে ও লাঠির আঘাতে কাঞ্চনের ছেলে শংকর রোজারিও, নাতী হেরোদ রোজারিও ও রাফায়েল চিচিম গুরুতর আহত হয়। এসময় শংকর রোজারিওর স্ত্রী আইরিন রোজারিওকে শ্লীলতাহানিসহ নানাভাবে লাঞ্জিত করে সন্ত্রাসীরা। পরে এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে মুক্তাগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় কাঞ্চন রোজারিও বাদী হয়ে শুক্রবার ১৩জনকে আসামী করে মুক্তাগাছা থানায় মামলা করেছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ( শনিবার দুপুর ২টা) পুলিশ কোন আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি। মুক্তাগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ কামাল হোসেন জানান আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশি তৎপড়তা অব্যাহত রয়েছে। এদিকে মাইকেল ম্রং, তিনেন্দ্র মানকিনসহ একাধিক আদিবাসী নেতা জানিয়েছেন সন্ত্রাসীদের দ্রুত গ্রেফতারসহ যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হলে আদিবাসীরা কঠোর আন্দোলনে নামতে বাধ্য হবে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:৩৪ অপরাহ্ণ | মে ০২, ২০১৫