| সকাল ১১:০৮ - শুক্রবার - ১২ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৩ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

লঘুচাপের প্রভাবে ময়মনসিংহ অঞ্চলে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি

লোক লোকান্তরঃ  পশ্চিমা লঘুচাপের প্রভাবে ময়মনসিংহ বিভাগের কিছু অঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্র বৃষ্টি হতে পারে। একই কারণে নদীবন্দরগুলোকে এক নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

 

আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও এর আশেপাশের এলাকায় অবস্থান করছে।

 

আগামী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।

 

অন্যদিকে, বুধবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়— ফরিদপুর, ঢাকা, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, ময়মনসিংহ এবং সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

 

এ সব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে এক নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

 

আবহাওয়াবিদ আব্দুল হামিদ বলেন, ‘সাগরে পশ্চিমা লঘুচাপ অবস্থান করছে। এর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি হতে পারে। নদীগুলো কিছুটা উত্তাল হতে পারে বলে নদীবন্দরে দেওয়া হয়েছে এক নম্বর সতর্ক সংকেত।’

 

বুধবার (৩ জুন) এবং বৃহস্পতিবার (৪ জুন) এই আবহাওয়া বিরাজ করতে পারে বলে তিনি জানান।

 

নিসর্গের সরাসরি কোনো প্রভাব আমাদের এখানে আসবে না। ভারতের অভ্যন্তরেই সেটা শান্ত হয়ে যাবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশের আবহাওয়া অধিদপ্তর। তবে নিসর্গ আমাদের বর্ষা মৌসুম আটকে দিয়েছে। নির্দিষ্ট সময়ে দু’তিন দিন পর বর্ষা প্রবেশ করবে বলে জানান আবহাওয়াবিদ হাফিজুর রহমান।

 

এদিকে আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ জানান,  নিসর্গের কারণে সরাসরি কোনো প্রভাব না থাকলেও গরম বেড়েছে। তিনি বলেন, একটু ভ্যাপসা গরম রয়েছে। এটা নিসর্গের কারণেই সৃষ্টি হয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:৫৮ অপরাহ্ণ | জুন ০৩, ২০২০