| সন্ধ্যা ৬:০৬ - বৃহস্পতিবার - ৪ঠা আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৫ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

উদ্বোধনের অপেক্ষায় বসুন্ধরায় বৃহত্তম হাসপাতাল

লোক লোকান্তরঃ   করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) আক্রান্তদের চিকিৎসা দিতে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) নির্মিত দুই হাজার ১৩ শয্যার অস্থায়ী হাসপাতাল পুরোপুরি প্রস্তুত। কিছু দাফতরিক কার্যক্রম শেষ হলেই উদ্বোধন করা হবে হাসপাতালটি।

 

গতকাল সাংবাদিকদের এ কথা জানান আইসিসিবির প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা এম এম জসীম উদ্দিন।

 

উল্লেখ্য, কভিড-১৯ বিপর্যয় শেষ না হওয়া পর্যন্ত এবং সরকারের যত দিন ব্যবহারের প্রয়োজন শেষ না হবে তত দিন বসুন্ধরা গ্রুপের পক্ষ থেকে আইসিসিবি ব্যবহারের জন্য দেওয়া হয়েছে। ১৫ দিনের মধ্যে আইসিসিবিকে পূর্ণাঙ্গ হাসপাতালে রূপ দিতে ১২ এপ্রিল কাজ শুরু করে স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর (এইচইডি)।

 

এম এম জসীম উদ্দিন বলেন, হাসপাতাল প্রস্তুত। এখানে আগে থেকে অনেক বড় বড় স্থাপনা রয়েছে। এ ছাড়া অনেক বড় ইলেকট্রিক সিস্টেম, প্রায় সাড়ে তিন হাজার টনের শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা, চারটি সাবস্টেশন, চারটি জেনারেটরসহ কারিগরি নানা বিষয় আছে।

 

ঠিকভাবে বুঝে না নিলে এগুলো পরিচালন করা কঠিন হবে। এগুলো বুঝে নেওয়ার পাশাপাশি স্বাস্থ্য অধিদফতরের সঙ্গে বসুন্ধরার দ্বিপক্ষীয় কিছু দাফতরিক কাজ আছে। এ কাজগুলো হয়ে গেলেই উদ্বোধন করা হবে।

 

এইচইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুদুল আলম বলেন, হাসপাতালের কাজ শতভাগ শেষ করা হয়েছে। এখন যে কোনো সময় চিকিৎসাসেবা দেওয়ার জন্য চালু করা যাবে।

 

হাসপাতালটির পরিচালক ডা. মো. এহসানুল হক বলেন, হাসপাতালের নির্মাণ শেষ। বসুন্ধরা গ্রুপের সঙ্গে কিছু অফিশিয়াল কার্যক্রম আছে, সেগুলো সম্পন্ন করেই উদ্বোধন করা হবে। জনবল নিয়োগ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা স্বাস্থ্য অধিদফতর দেখছে। কিছু চিকিৎসক, অফিস সহকারী, এমএলএসএস নিয়োগ হয়েছে। বাকিগুলো পর্যায়ক্রমে হয়ে যাবে।

 

প্রসঙ্গত, করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসাসেবা দিতে সরকারকে আইসিসিবিতে ৫ হাজার শয্যার একটি সমন্বিত অস্থায়ী হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব দেন দেশের শীর্ষ শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান।

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মতি দিলে স্বাস্থ্য অধিদফতর ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি দল পরিদর্শন করে হাসপাতাল স্থাপনের উদ্যোগ নেয়। নানা হিসাব-নিকাশ, পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে সেখানে ২ হাজার ১৩ শয্যার হাসপাতাল ও ৭১ শয্যার আইসিইউ স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয় স্বাস্থ্য অধিদফতর।

 

আইসিসিবির সুবিশাল চারটি কনভেনশন হল ও একটি এক্সপো ট্রেড সেন্টারে দেশের অন্যতম বৃহৎ এ হাসপাতালটির নির্মাণকাজ বাস্তবায়ন করছে সরকারের স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:৩২ পূর্বাহ্ণ | মে ১০, ২০২০