| দুপুর ১২:৫০ - বুধবার - ১৭ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ২রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসায় রেমডেসিভির ওষুধের অনুমোদন দিলো যুক্তরাষ্ট্র

লোক লোকান্তরঃ  রেমডেসিভির করোনাভাইরাস রোগীদের চিকিৎসার জন্য কার্যকর বলে প্রমাণিত হয়েছে সম্প্রতি এমন সংবাদের পর করোনা চিকিৎসায় রেমডেসিভির ওষুধ ‘জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন’ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

 

শুক্রবার (১ মে) যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এফডিএ) ট্রায়ালে থাকা পরীক্ষামূলক ওষুধ রেমডেসিভিরের অনুমোদন দেওয়া হয়।

 

ওভাল অফিসে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, স্বাস্থ্য ও মানবসেবাবিষয়ক মন্ত্রী অ্যালেক্স আজার, (এফডিএ) কমিশনার ড. স্টিফেন হান ও গিলিড সায়েন্সেস-এর সিইও’র মধ্যকার এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

 

গিলিয়াড সায়েন্সেস প্রাথমিকভাবে ১.৫ মিলিয়ন ওষুধ দান করবে আক্রান্ত দেশগুলোতে।

 

বুধবার (৩০ এপ্রিল) রেমডেসিভির করোনাভাইরাস রোগীদের চিকিৎসার জন্য কার্যকর বলে প্রমাণিত হয়েছে বলে জানায় যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ও আমেরিকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশন ডিজিজেসের পরিচালক অ্যান্থনি এস ফাউসি।

 

তিনি বলেন, সকল তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে দেখা যায় যে, রেমিডেসিভির প্রয়োগের ফলে করোনা আক্রান্ত রোগী দ্রুত সুস্থ হয়ে যাচ্ছেন। গিলিয়াড সায়েন্সেসের তৈরি রেমডেসিভির ওষুধ এর আগে ইবোলা চিকিৎসায় ব্যবহার করা হয়।

 

হোয়াইট হাউসে ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজ-এর তত্ত্বাবধানে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের ১০৬৩ মানুষের ওপর পরিচালিত একটি গবেষণার তথ্য তুলে ধরেন ফাউসি। এদের বেশির ভাগের মধ্যে রেমডেসিভির দেওয়া হয়েছিল। এতে দেখা গেছে রেমডেসিভির গ্রহণকারীরা গড়ে ১১ দিনের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

 

এখন পর্যন্ত ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল আর যে রোগীদের মৃত্যু এড়ানোর আর কোনও উপায় নেই তাদের ক্ষেত্রে রেমডেসিভির ব্যবহার করা হয়েছে। এফডিএ-এর অনুমোদনের পর গুরুতর অসুস্থ রোগীদের ক্ষেত্রে এই ওষুধ ব্যবহারের সুযোগ সৃষ্টি হলো।

 

মার্কিন সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ উইলিয়াম শাফনার এনবিসিকে বলেছেন, এখন থেকে ডাক্তাররা ‘হাসপাতালে চিকিৎসারত রোগীদের জন্য প্রেসক্রিপশনে রেমডেসিভিরের নাম লিখতে পারবেন’।

 

করোনাভাইরাস আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য এখন পর্যন্ত কোনও অনুমোদিত ওষুধ নেই। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ কার্যকর ওষুধ নিয়ে গবেষণা করছে। এরই একটি হলো রেমডেসিভির।

 

গিলিড সায়েন্সেস-এর তৈরি এ ওষুধটি অতীতে ইবোলার বিরুদ্ধে পরীক্ষা করা হলেও তেমন সফলতা মেলেনি।

 

তবে বিভিন্ন সময়ে পশুর শরীরে চালানো বেশ কয়েকটি পরীক্ষায় দেখা গেছে, সার্স ও মার্স-এর মতো করোনা প্রজাতির ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধ ও চিকিৎসায় এ ওষুধ কার্যকর হতে পারে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৬:১০ পূর্বাহ্ণ | মে ০২, ২০২০