| সন্ধ্যা ৭:০৭ - সোমবার - ১৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৬ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

ময়মনসিংহ মেডিকেলে এখন করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকেই করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল নির্ধারণের সিদ্ধান্ত হয়েছে। বৃহষ্পতিবার বিকেলে স্বাস্থ্য বিভাগ এ বিষয়ে অনুমতি দিয়েছে।

 

ময়মনসিংহের সিভিল সার্জন এ বি এম মশিউল আলম এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

তিনি বলেন, মঙ্গলবার জেলা প্রশাসন সম্মেলন কক্ষে করোনা প্রতিরোধ কমিটির এক সভা হয়। এতে গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। ওই সভার সুপারিশের ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

 

স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র বলছে, ওই সভায় বক্তারা করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বিভিন্ন বক্তব্য তুলে ধরেন। তাঁরা বলেন, ময়মনসিংহে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই তাঁদের চিকিৎসার জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ ও প্রস্তুতি এখনই নিতে হবে।

 

সভায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আটতলা নতুন ভবনটিকে করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে রূপান্তরের প্রস্তাব দেওয়া হয়। ওই সুপারিশ বিবেচনায় নেওয়া হয়। পরে স্বাস্থ্য বিভাগ এই প্রস্তাব অনুমোদনের সিদ্ধান্ত নেয়।

 

মঙ্গলবারের সভায় সিভিল সার্জন ছাড়াও জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান, হাসপাতালের উপপরিচালক লক্ষী নারায়ণ মজুমদার, মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ চিত্তরঞ্জন দেবনাথ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী তিন-চার দিনের মধ্যেই হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীদের পুরাতন ভবনে স্থানান্তর করা হবে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন।

 

তিনি বলেন, ময়মনসিংহে অন্য কোনো সুবিধাজনক স্থানে সরকারি ভবন পাওয়া যাচ্ছিল না। তাই করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল স্থাপনে বিলম্ব হয়েছে। তবে করোনা প্রতিরোধে পর্যাপ্ত প্রস্তুতি আছে।

 

এর আগে ময়মনসিংহ শহরের এসকে হাসপাতালে প্রথমে ৩০ শয্যা ও পরে ৭০ শয্যার আইসোলেশন ইউনিট প্রস্তুত করা হয়। একই সঙ্গে সদরের পরানগঞ্জ হাসপাতালে ৩০ শয্যা এবং মুক্তাগাছার শারীরিক শিক্ষা কলেজে ৫০শয্যার আইসোলেশন ইউনিট প্রস্তুত আছে।

 

বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে আরও ২৪০ শয্যার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছিল। অন্যান্য উপজেলা মিলিয়ে সর্বমোট সাড়ে চার শ শয্যা প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

 

শুক্রবার পর্যন্ত ময়মনসিংহ বিভাগে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৮১ জন। ময়মনসিংহ জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৪৫।

 

পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে, এমন আশঙ্কা থেকেই ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নতুন ভবনকে করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল করার জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে। এখানে ৫০০ রোগীকে চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হবে।

 

বিলম্বে হলেও করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল স্থাপনের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন বিএমএ ময়মনসিংহ শাখার সাধারণ সম্পাদক হোসাইন আহাম্মদ গোলন্দাজ।

 

তিনি বলেন, এই সিদ্ধান্তের ফলে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের যথাযথ চিকিৎসাসেবা দেওয়া সম্ভব হবে। কারণ, এই হাসপাতালে আইসিইউ, ভেন্টিলেটর এবং পর্যাপ্ত অক্সিজেনসহ সব ব্যবস্থা রয়েছে।

 

মূল প্রতিবেদনঃ  প্রথম আলো

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:২৩ অপরাহ্ণ | মে ০১, ২০২০