| বিকাল ৪:০৫ - সোমবার - ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১১ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

নিকলীতে দুইপক্ষের সংঘর্ষে -আহত ৬, গ্রেপ্তার ১

খাইরুল মোমেন স্বপন, নিকলী প্রতিনিধিঃ   নিকলীতে বাড়ীর সীমানা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অন্তত ৬ জন আহত হয়েছে। শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে। থানায় মামলা, গ্রেপ্তার এক। সংঘর্ষে গুরুতর আহত মোঃ কাশেম (২৯)কে প্রথমে ভাগলপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থার অবনতি দেখে উন্নতর চিকিৎসার জন্য রাজধানী ঢাকার হ্নদরোগ ইনষ্টিটিউট এ ভর্তি করা হয়েছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, কাশেম হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। আহত কাশেমের স্ত্রী শরিফা (২৭), স্বর্ণা (৯), প্রতিবন্দি আপন (৭) ও ইয়াছিন (৩১)কে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। প্রতিপক্ষের অপু মিয়া (২১) আহত হয়ে নিকলী সরকারী হাসপাতালে ভর্তি হয়। মামলা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার কারপাশা ইউনিয়নের মজলিশপুর তালাবপাড় গ্রামের সোনামদ্দিন (৫৫) তার ছেলে অপু (২১), আলমগীর (২৫), মৃত আব্বাছ আলীর ছেলে সপু মিয়া (৫৮) ও সপু মিয়ার ছেলে বিপুল (২৬) দা, কুন্তি, লাঠি ও লোহার রড ইত্যাদি দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে প্রতিবেশী মোঃ কাশেমের বাড়ীতে অতর্কিতে হামলা চালায়। এসময় অপু মিয়া ধারালো দা দিয়ে খুন করার উদ্দেশ্যে কাশেমের মাথা লক্ষ্য করে কোপ মারিলে কাশেম হেলিয়া পড়ায় উক্ত কোপ কাশেমের ডান হাতের কনুইয়ের উপরের অংশে লাগে। বিপুল নামে এক বকাটে এসময় কাশেমের স্ত্রী শরিফার পড়নের কাপড় টেনে ছিড়ে বিবস্ত্র করে ¤¬ীলতাহানি ঘটায়। এ ব্যাপারে কাশেমের ছোটভাই জনি বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামী করে নিকলী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। নিকলী থানার এসআই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফযেজ উদ্দিন এ প্রতিনিধিকে বলেন, এজাহার ভূক্ত ৫নং আসামী আলমগীরকে (আজ) শুক্রবার গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যান্য আসামীদেরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:১৯ অপরাহ্ণ | মার্চ ১১, ২০১৬