| রাত ১:০৩ - বৃহস্পতিবার - ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ৬ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

ধোবাউড়ায় ব্যবসায়ী অপহরণ মুক্তিপণ দাবি ৫ দিন পর ফেরত

ধোবাউড়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ঃ ২৪ জানুয়ারি ২০১৬, রবিবার,
ধোবাউড়া উপজেলার সীমান্তবর্তী দঃ মাইজপাড়া ইউনিয়নের সোহাগীপাড়া গ্রামের হারেস আলী মুন্সির ছেলে শামীম (১৮) কে গত ১৯ জানুয়ারী মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টায় অপহরণ করে নিয়ে যায় র্দুবৃত্তরা। এরপর থেকে এলাকার চেয়ারম্যান গাজীউর রহমান ও শামীমের বাবার মুটোফোনে কল করে ৫০ লক্ষ টাকা মুক্তিপন দাবি করে। এমনকি কোন মিডিয়া এবং পুলিশকে জানালে খুন করার হুমকি দেয়। ভয়ে বিষয়টি গোপন রাখে শামীমের পরিবার। তবে বৃহস্পতিবার থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরী করা হয়। অবশেষে শনিবার রাত আনুমানিক ২ টায় ধোবাউড়া সদরে চোখ বাঁধা অবস’ায় তাকে ছেড়ে দেয়। ফিরে আসার পর গতকাল শামীম জানায় বগাজোড়া গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে আঃ খালেক (২৫) তাকে ফোন করে সোহাগীপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলার মাঠে নিয়ে যায়। পরে হাশেম শিকদারের ছেলে সুমন মিয়া(২৪)সহ আরও কয়েকজন চোখ বেধে ফেলে। নিয়ে যাওয়ার সময় রাস-ায় ৩টি মটরসাইকেল বদল করা হয়। শামীম জানায় যাওয়ার পথে অপহরণকারীরা ঘাগড়া নামক স্থানের কথা বলছিল। পরে শনিবার রাতে ধোবাউড়া তারাইকান্দি ব্রীজের উপর নামিয়ে দিয়ে যায়। এ ব্যাপারে দঃ মাইজপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গাজিউর রহমান বলেন, আমাকে ফোন করার পর আমরা সন্দেহ করে চাপ সৃষ্টি করলে শামীমকে ফেরত দেওয়া হয়। এ ঘটনায় এলাকায় বেশ তোলপাড়া চলছে। সাধারন মানুষ এর সুষ্ট বিচার দাবি করেছেন। এলাকায় পুলিশ ঘটনার তদন- করছেন। এ ব্যাপারে ধোবাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ শওকত আলম বলেন, ঘটনার তদন্ত করে প্রকৃত দুষিদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।##

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:৩৫ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ২৪, ২০১৬