| রাত ৪:৩৪ - শুক্রবার - ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১৪ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

শেরপুরের নকলায় জমি নিয়ে সংঘর্ষ: নিহত-১, আহত-১

শেরপুর প্রতিনিধি:২ জানুয়ারি ২০১৬, শনিবার,
শেরপুরের নকলায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত ও একজন আহত হয়েছেন। নিহতের নাম মো. আজিজল হক (৪৫)। তিনি নকলা উপজেলার উরফা ইউনিয়নের হাসনখিলা গ্রামের আব্দুল কুদ্দুছের ছেলে। সংঘর্ষে আহত হয়েছেন হাসনখিলা গ্রামের ফজর আলীর ছেলে সেকান্দর আলী (৩০)। তাঁকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহত আজিজল আহত সেকান্দর আলীর বোন জামাই। আজ ২ জানুয়ারী শনিবার দুপুরে উপজেলার হাসনখিলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
পুলিশ ও স’ানীয় সূত্রে জানা গেছে, ১৫ শতাংশ জমি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত নকলা উপজেলার হাসনখিলা গ্রামের ফজর আলীর (৬৫) সঙ্গে চাচাত ভাই রইছ উদ্দিনের (৬০) বিরোধ চলে আসছিল। স্থানীয়ভাবে আপসের চেষ্টা করা হলেও বিরোধ নিরসন হয়নি। গত ১ জানুয়ারী শুক্রবার ফজর আলী বিরোধপূর্ণ ওই জমিতে বোরো ধান রোপণ করেন। এতে ক্ষুুব্ধ হয়ে আজ ২ জানুয়ারী শনিবার বেলা ১১ টার দিকে রইছ উদ্দিনের লোকজন রোপণ করা ধান বিনষ্টের চেষ্টা চালান। এ সময় ফজর আলীর লোকজন বাধা দিলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এতে প্রতিপক্ষের ধারালো রাম দা’র আঘাতে ফজর আলীর ছেলে সেকান্দর আলী ও মেয়ে জামাই আজিজল হক গুরম্নতর আহত হন।
স্থানীয় এলাকাবাসী আশংকাজনক অবস্থায় তাঁদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্স ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ শনিবার দুপুর দুইটার দিকে আজিজল ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান।
নকলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. গোলাম হায়দার আজ শনিবার বিকেলে বলেন, এ ঘটনায় নকলা থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে। নিহতের লাশ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়নাতদনত্মশেষে পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হবে। তবে ঘটনার সঙ্গে জড়িতরা পালিয়ে যাওয়ায় পুলিশ কাউকে আটক বা গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:৪২ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ০২, ২০১৬