| ভোর ৫:৫৬ - রবিবার - ৭ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৩শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

ফলোআপ শেরপুরে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার-১

শেরপুর প্রতিনিধি: ১০ অক্টোবর ২০১৫, শনিবার,
শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে মাদ্রাসা ছাত্রীকে (১২) অপহরণের পর ধর্ষণ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে মো. রকিবুল হাসান (২৮) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রকিবুল উপজেলা সদরের দিঘিরপাড় গ্রামের মৃত আব্দুল হকের ছেলে।
গ্রেপ্তার রকিবুলকে আজ ১০ অক্টোবর শনিবার বিকেলে শেরপুরের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম সরকার হাসান শাহরিয়ার আদালতের নির্দেশক্রমে জেলা কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। আজ শনিবার ভোররাতে ঝিনাইগাতী থানা পুলিশ তাঁকে ঝিনাইগাতী বাজারের এক আত্মীয়ের বাসা থেকে গ্রেপ্তার করে।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঝিনাইগাতীর দিঘিরপাড় গ্রামের ওয়াহেদ আলীর ছেলে আতিকুর রহমান গ্রেপ্তার রকিবুল হাসানসহ দুই যুবকের সহযোগিতায় গত ১ অক্টোবর বৃহস্পতিবার রাতে ওই মাদ্রাসাছাত্রীকে অপহরণ এবং পরে এক আত্মীয়ের বাসায় আটক রেখে ধর্ষণ করেন। পরদিন শুক্রবার রাতে ঝিনাইগাতী থানা পুলিশ ছাত্রীটিকে আতিকুরের ওই আত্মীয়ের বাড়ি থেকে উদ্ধার করে।
এ ঘটনায় ছাত্রীটির বাবা ঝিনাইগাতী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে আতিকুরকে প্রধান আসামি করে আরও দুইজনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। গত ৫ অক্টোবর সোমবার ছাত্রীটি শেরপুরের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আ.ন.ম. ইলিয়াসের আদালতে জবানবন্দি দেয়। ওইদিনই শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে ছাত্রীটির ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়।
ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুর রহমান আজ শনিবার বিকেলে বলেন, ছাত্রীটির দেওয়া জবানবন্দির ভিত্তিতে রকিবুল হাসানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রধান আসামি আতিকুর রহমানসহ অন্যদেরও গ্রেপ্তারে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:০০ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ১০, ২০১৫