| রাত ১২:২৮ - রবিবার - ২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৬ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

ময়মনসিংহে পুজা হবে ৭০৫ টি মন্ডপে ঃ ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে প্রতিমা তৈরি ও সাজসজ্জার কারিগরদের

 

স্টাফ রিপোটার, ৭ অক্টোবর ২০১৫, বুধবার,
হিন্দু সমপ্রদায়ের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গোৎসবকে ঘিরে ব্যস্ত  সময় কাটাচ্ছে প্রতিমা তৈরির কারিগর মৃৎ শিল্পী ও সাজসজ্জার কারিগররা।  তারা এখন ব্যস্ত রঙ-তুলির আঁচর ও সাজসজ্জায়। ময়মনসিংহে এবার ৭০৫ টি পুজা মন্ডপে চলছে প্রতিমা তৈরির শেষ মুহুর্তের কাজ। তবে উপযুক্ত পারিশ্রমিক আর শ্রমিক সংকটে হতাশ কারিগররা। আগামী ১৯ অক্টোবর থেকে শুরু হতে যাচ্ছে হিন্দু সমপ্রদায়ের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুগাপূঁজো। পূঁজোর দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই ব্যসত্ম সময় কাটাচ্ছে প্রতিমা তৈরির কারিগররা। দশভূজা দেবী দূর্গাকে রঙ-তুলির আঁচরে জীবন্ত রূপ দিতে মন্ডপে মন্ডপে চলছে শেষ মুহুর্তের প্রস’তি। প্রতিমা তৈরি শেষে দেবীকে গহনা আর নানান সাঁজে সাজানোর প্রক্রিয়া চলছে। তবে উপযুক্ত পারিশ্রমিক আর শ্রমিক সংকটে হতাশ কারিগররা। শারদীয় দুর্গোৎসবকে ঘিরে জেলার ৭০৫ টি পূঁজামন্ডপ সাঁজানো হচ্ছে ভিন্ন ভিন্ন সাঁজে। রঙ-বেরঙের তোরণ আর লাইটিংএ আলোকিত করা হচ্ছে পুরো এলাকা-মহল্লা। দম ফেলার ফুসরত নেই সাজসজ্জা, তোরণ ও মঞ্চ তৈরীর শ্রমিকসহ পূঁজারীদের। আর এজন্য দেশের বিভিন্নস’ান থেকে শ্রমিকরা একমাস ধরে পরিশ্রম করে যাচ্ছে।
জেলা পূঁজা উদযাপন পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক শংকর সাহা বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এ ময়মনসিংহে শান্তিপূর্ন পরিবেশেই পূজা উদযাপিত হবে বলে আশাবাদ পূজা উদাযাপন কমিটির। এদিকে জেলা পুলিশ সুপার জানান, প্রতি বছরের মতো এবছরও শান্তিপূর্নভাবে ময়মনসিংহে পূজা উদযাপনের জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস’তি । জেলার প্রতিটি মন্ডপে মন্ডপে নিরাপত্তার জন্য থাকবে পুলিশ। আর পাশাপাশি থাকবে আনসার বাহিনীর সদস্য ।
ময়মনসিংহে এবারও শহরের জুবলিঘাটস’ হিন্দু ধর্মশালায় ব্যাতিক্রমী ও মহিলাদের উদ্যোগে শিববাড়ি মন্দিরের পূঁজো দূরদূরানেত্মর দর্শক-পূঁজারীদের নজড় কারবে এমনটাই প্রত্যাশা ময়মনসিংহবাসীর।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:৫৬ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ০৭, ২০১৫