| রাত ৩:৩৬ - বৃহস্পতিবার - ১১ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১২ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

মুক্তাগাছায় ত্রাস সৃষ্টি করে দোকানে হামলা ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ

 

মুক্তাগাছা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৫, বুধবার,

মুক্তাগাছার পল্লীতে গত মঙ্গলবার রাত আড়াইটায় পরিকল্পিতভাবে সন্ত্রাসী কায়দায় জনমনে ভয়ভীতি ও ত্রাস সৃষ্টি করে দোকান ঘরে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে মুক্তাগাছা থেকে ফায়ার সার্ভিস গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। জানা যায়, দুলস্না ইউনিয়নের কুড়িপাড়া গ্রামের হেলাল উদ্দিনের সাথে একই গ্রামের জসিম উদ্দিন গংদের জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এ ব্যাপারে জসিম উদ্দিন গংরা হেলালদের বিরম্নদ্ধে মুক্তাগাছা থানায় একটি মামলা দায়ের করে। গত মঙ্গলবার রাতে হেলালদের একজন লোক পুলিশ গ্রেফতার করে। পুলিশের ভয়ে বাড়ির অন্যান্য লোকেরা বাড়ি থেকে সরে পড়ে। এ সুযোগে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে জসিম উদ্দিন, আবুল হোসেন, অছিম উদ্দিন, আক্কাছ আলী, মকবুল হোসেন, আব্দুস সামাদ, জহিরম্নল, কডু, চাঁন মিয়া, জুয়েল সহ ১৫/২০ জনের একটি সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী গ্রম্নপ এলাকায় জনমনে ভয়ভীতি ও ত্রাস সৃষ্টি করে সন্ত্রাসী কায়দায় রাত অনুমান আড়াইটার দিকে হেলালের দোকান ঘরে অতর্কিত হামলা চালায়। সন্ত্রাসীরা রামদা, শাবল ও দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে দোকান ঘরের টিনের বেড়া কেটে ঘরে প্রবেশ করে দোকানের সমসত্ম মালামাল লুট করে নিয়ে ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। দোকানে থাকা হেলালের স্ত্রী খতিজা খাতুন এক শিশু কন্যা নিয়ে ঘুমাচ্ছিল তাকেও মারধর এবং তার শরীরের কাপড়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। জীবন বাঁচাতে খতিজা দৌড়ে গিয়ে পানিতে ঝাপ দিয়ে জীবন বাঁচায়। আগুন লাগার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস’লে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:৫২ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৫