| রাত ১১:৩০ - বুধবার - ১৭ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

গফরগাঁওয়ে চিফস খেয়ে ৮ শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে হাসপালে, আতঙ্কে শিক্ষার্থীরা

আজহারুল হক, গফরগাঁও,১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫, বুধবারঃ  ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে বুধবার দুপুরে চিফস খেয়ে খারুয়া বড়াইল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ শিক্ষার্থী গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। পড়ে অসুস্থ  শিক্ষার্থীদের দ্রুত গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৭ম শ্রেণীর দুই ছাত্রী শ্বাসকষ্ট শুরু হলে নেবোলাইজার দিতে না পারায় দুজনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে টিফিনের পর বিদ্যালয়ে ছুটি ঘোষনা করা হয়।
জানা যায়, উপজেলার খারুয়া বড়াইল উচ্চ বিদ্যালয়ে গতকাল দুপুরে ১০ শ্রেণীর ছাত্রী মার্জিয়া আক্তার চিফস খেয়ে হঠাৎ স্কুল কমনরুমে অসুস্থ হয়ে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। এ সময় তাকে দেখে পর্যায়ক্রমে বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর সূচীতা, আরিফা, সন্ধা, সুনম, উর্মী ও ৭ম শ্রেণীর তানিয়া, মিতু আক্তারও অসুস’ হয়ে জ্ঞান হারায়। পড়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা পানি ঢেলে এদের সুস’ করতে ব্যর্থ হয়ে দ্রুত গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী তানিয়া ও মিতুর শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। এ সময় বিদ্যুতের অভাবে নেবোলাইজার দিতে না পারায় দুজনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বীনা দেবনাথ বলেন, ধারণা করছি টিফিনে কিছু খেয়ে অথবা গরমে শিক্ষার্থীরা অজ্ঞান হয়ে পড়ে।
গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক দিলরুবা আমিন বলেন, চিফস খেয়ে হয়তো কয়েকজন শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়। যেহেতেু সকলেই চিফস খায়নি তাই নার্ভাসনেস বাকি ছাত্রীরা অসুস’ হয়ে পড়ে। এটাকে গণ মনস্তাত্বিক রোগও বলা যেতে পারে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:০১ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৫