| সকাল ৬:৪৫ - সোমবার - ৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৯ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

নিকলীতে সংঘর্ষে রক্তাক্ত মসজিদ প্রাঙ্গণ, গ্রেপ্তার ১

নিকলী (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ ৩ জুলাই ২০১৫, শুক্রবার: 

শিশুদের ঝগড়াকে কেন্দ্র করে নিকলীতে সংঘঠিত দু’পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। গত বৃহষ্পতিবার রাতে তারাবীহ্‌ নামাজ শেষে উপজেলার সিংপুর ইউনিয়নের গোরাদিঘা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে আহত ইস্রাফিলের স্ত্রী অরুনা (৪৫),লস্কর মিয়ার পূত্র শাহেদ আলী(৩৭)কে নিকলী উপজেলা স্বাস’্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। অলিল মিয়ার স্ত্রী মারুফা (২৫), ফালু মিয়ার পূত্র বাক্কার(২৫), ইস্রফিলের পুত্র হুমায়ুন(৩০), মেয়ে সেলতুফা (১৬)কে আশংকাজনক অবস’ায় ভাগলপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। সংঘর্ষে জড়িত সন্দেহে হাসপাতাল গেইট থেকে জাহেদ আলীর পূত্র জয়নাল(৪৫) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় সেলতুফা, হুমায়ুনের বাবা ইস্রাফিল বাদী হয়ে গতকাল শুক্রবার সকালে ১১ জনকে আসামী করে নিকলী থানায় মামলা দায়ের করেন।
এলাকাবাসী ও মামলা সূত্রে জানা যায়, গত বৃহষ্পতিবার ছোট বাচ্চাদের ঝগড়াকে কেন্দ্র করে উপজেলার হাওর বেষ্ঠিত গোরাদিঘা গ্রামে চাচাত জা’য়েদের মাঝে ঝগড়া বাধে। এক পর্যায়ে বাড়ীর পুরুষসহ অন্যরাও তর্কে জড়িয়ে পড়লে এক পর্যায়ে হাতাহাতি পর্যন- গড়ায়। রাতে তারাবীর নামাজ শেষে মসজিদের সামনেই দেশীয় অস্ত্র নিয়ে একপক্ষ আরেক পক্ষের উপর আক্রমন চালায়। এতে বাক্কার নামে একজনের হাতের কব্জী কর্তনসহ উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১০ ব্যক্তি আহত হয়। নিকলী থানার অফিসার ইনচার্য একেএম মাহবুব আলম ঘটনা ও মামলার সত্যতা স্বীকার করে একজনকে রাতেই গ্রেপ্তাতার এবং জড়িতদের ব্যপারে ব্যবস’া নিতে জোর চেষ্টা চলছে । এলাকায় থমথমে অবস’া বিরাজ করছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:২৪ অপরাহ্ণ | জুলাই ০৩, ২০১৫