| দুপুর ১২:৩৫ - শুক্রবার - ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ - ১৯শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

ধোবাউড়ায় কুকুর আতংক

ধোবাউড়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি,  ৩০ জুন ২০১৫, মঙ্গলবার:
কুকুর আতংকে ধোবাউড়া উপজেলাবাসী ভীতসন্ত্রস্ত। সাম্প্রাতিক সময়ে কুকুরের উপদ্রবে মানুষ নির্বিগ্নে চলাচল করতে পারছেনা। এদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে এলাকাবাসী। বিশেষ করে নারী ও শিশুদের চরম বিড়ম্বনার শিকার হতে হচ্ছে। কুকুরের আক্রমনের শিকার হয়েছেন বেশ কয়েকজন। রেহাই পায়নি গবাধিপশুও। উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের তথ্য অনুযায়ী জানুয়ারী থেকে জুন পর্যন- সিন্ধুরা,হাজংপাড়া,শিবানন্দখিলা,সদর বাজার,বলরামপুর,বাঘরা গ্রাম থেকে ১০০ বা তারও বেশী গবাদিপশু কুকুরের কামড়ে আক্রান- অবস্থায় চিকিৎসার জন্য এসেছে। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের তথ্যমতে প্রতিমাসে ৫টিরও বেশী রোগী কুকুরের কামড়ে আক্রান- হ”েছ। এরই মধ্যে সদর বাজারের বিলকিস আক্তারের ছেলে অন্তর (০৭) মাদ্রাসা থেকে আসার পথে কুকুরে খামড়ায়। পরে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেলে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এছাড়া মোবাইল মেকানিং মিছির এর ছেলে ইপরাত (০৪) কে মুক্তিযোদ্ধা সড়কে বাসা থেকে বের হলে কুকুর কামড় দেয়। এ অবস্থায় অভিভাবকরা তাদের ছেলে মেয়েকে বিদ্যালয়ে পাঠাতে ভয় পাচ্ছেন। সরেজমিন উপজেলার বিভিন্ন জায়গা ঘুরে দেখা গেছে অবাধে ঘুরে বেড়াচ্ছে বেওয়ারিশ কুকুর।বার বার মটরসাইকেল, টেম্পোসহ যানবাহনের সামনে এসে পড়ছে এই কুকুরগুলো। হর্ন বাজিয়েও সরানো যাচ্ছেনা। কোন পথচারীকে দেখলে তেড়ে আসে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে কুকুর নিধন বা ভ্যাকসিনের কোন উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। উপজেলা প্রানিসম্পদ কর্মকর্তা মহি উদ্দিন জনবল, অর্থসংকট এবং ভ্যাকসিনের অভাবকেই অযুহাত দিচ্ছেন এলাকাবাসী কুকুর নিধনে উর্দ্ধতন মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

সর্বশেষ আপডেটঃ ১২:৪১ অপরাহ্ণ | জুন ৩০, ২০১৫