| বিকাল ৪:১৩ - শনিবার - ১৩ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

কোকেনের পরিমান নির্ণয়ে জাতিসংঘে চিঠি

চট্রগ্রাম বন্দরের সানফ্লাওয়ার তেলের কনটেইনারটির ড্রামগুলোতে কি পরিমাণ কোকেন রয়েছে তা কারিগরি কারণে নির্ণয় করা যায়নি বলে জানিয়েছে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর। এজন্য জাতিসংঘের একটি বিশেষজ্ঞ দলকে আমন্ত্রণ জানাতে রোববার বাংলাদেশের পক্ষ থেকে চিঠি দেওয়া হচ্ছে জাতিসংঘে।

এই কোকেন আমদানির বিষয়টি খতিয়ে দেখতে ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করেছে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর। আর এ ঘটনায় মামলা করেছে পুলিশ।

শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক হোসাইন আহমেদ বলেন, ‘এক্ষেত্রে একটি আন্তর্জাতিক চোরাকারবারী দল জড়িত আছে। তাই আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তদন্ত করার জন্য এনবিআরের উদ্যোগে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে জাতিসংঘে চিঠি লেখা হচ্ছে।`

এছাড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরো উন্নত করার জন্য এবং চারদিক থেকে কন্টেইনার দিয়ে জ্যাম করে রাখার জন্য ডিজি অফিস থেকে চট্রগ্রাম বন্দরকে চিঠি দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এ ঘটনায় মামলা প্রসঙ্গে সিএমপির অতিরিক্ত উপ কমিশনার এস এম তানভীর আরাফাত বলেন, ‘আদালতের নির্দেশে আমাদের বন্দর থানায় মাদকদ্রব্য আ্ইনে একটি নিয়মিত মামলা হয়েছে। সে মামলায় দুজনকে আসামী করা হয়েছে এবং আরো কিছু অজ্ঞাত আসামী রাখা হয়েছে। তদন্ত অব্যহত আছে।’

ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে চট্টগ্রামে একজন আটক রয়েছে। এছাড়া যুক্তরাজ্যে দুই বাংলাদেশি আটক থাকার কথাও জানিয়েছে পুলিশ। এদিকে, চালানটি আমদানির বিষয় খতিয়ে দেখতে শুল্ক গোয়েন্দা দপ্তরের উপপরিচালক জাকির হোসেনকে প্রধান করে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এর আগে গত ৮ জুন সানফ্লাওয়ার তেলের কনটেইনারটির ড্রামগুলো থেকে বিভিন্ন সংস্থার উপস্থিতিতে নমুনা সংগ্রহ করা হয়।পরে তা পরীক্ষা করার জন্য দুইটি ল্যাবে পাঠানো হয়। এরপর প্রাপ্ত প্রতিবেদনে নিশ্চিত হওয়া গেছে ১৮৫ কেজি ওজনের একটি ড্রামে কোকেন আছে।তবে তার পরিমাণ নির্ণয় করা সম্ভব হয়নি।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:০৭ পূর্বাহ্ণ | জুন ২৯, ২০১৫